রাজগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের দাফন সম্পন্ন

joinal abidin rajgonj

যশোরের রাজগঞ্জে সবার প্রিয় প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন আর নেই। বাধ্যক্যজনিত কারনে শনিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে তিনি ইন্তেকাল করেছেন।(ইন্নালিল্লাহি—রাজিউন)। রাষ্টীয় মর্যাদায় তার দাফন কার্য্য সম্পর্ন্ন করা হয়েছে।

জানা যায়, মণিরামপুর উপজেলার ঝাপা ইউনিয়নের হানুয়ার গ্রামের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন দীর্ঘদিন বার্ধ্যক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। তিনি শনিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে নিজ বাড়িতে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। তিনি ১ স্ত্রী, ২ পুত্র ও ১ কন্যাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে রেখে গেছেন।

এদিকে প্রিয় শিক্ষকের মুখ এক নজর দেখতে রাত ও দিনভোর বাড়িতে হাজার হাজার নারী পুরুষের ভীড় ছিল। রবিবার দুপুরে হানুয়ার হাফিজিয়া মাদ্রাসা ময়দানে নির্বাহী মাজিষ্টে ও সহকারী ভুমি কমিশনার সাইয়েমা হাসানের উপস্থিতিতে গার্ড অনার প্রদান করা হয়েছে। এ সময় বিভিন্ন এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধারা মরহমের কফিনে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান। সবার প্রিয় শিক্ষকের নামাজে জানাযায় হাজার হাজার মানুষ উপস্থিতিত ছিলেন। নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন কার্য্য সম্পর্ন্ন করা হয়েছে।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও সম্পাপ্ত পরিবার প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি জানিয়েছেন, এলাকার প্রাথমিক, মাধমিক, মাদ্রাসা ও কলেজের শিক্ষক/ছাত্র/ছাত্রীসহ প্রাক্তন ছাত্র/ছাত্রীবৃন্দ।

উল্লেখ্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন প্রথমে ছিলেন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। পরে তিনি পদন্নতি পেয়ে প্রধান শিকক হন। তিনি শিক্ষকতা জীবনের অধিকাংশ সময় পার করেছেন রাজগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এ ছাড়া শিক্ষকতা জীবনে সীমিত সময়ে পার করেছেন রাজগঞ্জের আশপাশের কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। তিনি শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসাবে কয়েকবার উপাধি লাভ করেছেন। ছাত্র/ছাত্রীদের ও অভিভাবকদের কাছে ভাল শিক্ষক হিসাবে সুনাম অর্জন করাই তিনি সবার কাছে প্রিয় হয়ে উঠেছিল।