সীমান্তবর্তী গুরুত্বপূর্ণ ২ এলাকা দখলে নিলো তালেবান

Afganistan

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের মধ্যে জেলার পর জেলা দখলে নিচ্ছে তালেবান। এবার গুরুত্বপূর্ণ সীমান্তবর্তী দুটি এলাকা দখলে নিল গোষ্ঠীটি।

শুক্রবার তালেবান এ দুই এলাকার দখল নেয়। খবর তোলো নিউজের। খবরে বলা হয়, স্থানীয় কর্মকর্তারা শুক্রবার নিশ্চিত করেছেন যে, আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলের হেরাত প্রদেশে ইরানের সঙ্গে স্থলবাণিজ্যের অন্যতম পথ সীমান্তবর্তী শহর ইসলাম কালা এবং তুর্কমেনিস্তানের সঙ্গে দুটি স্থল বাণিজ্যপথের একটি সীমান্তবর্তী শহর তোড়গুন্দি দখলে নিয়েছে তালেবান।

হেরাত প্রদেশের শুল্ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নিসার আহমাদ নাসেরি বলেন, তালেবান দখলে নেওয়ার পর থেকে ইসলাম কালা কাস্টমস অফিসের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, তালেবান যোদ্ধারা আফগানিস্তান ও ইরানের সীমান্তবর্তী অঞ্চলে ইরানি সীমান্ত বাহিনীর সঙ্গে কথা বলছেন। এই দুই গুরুত্বপূর্ণ সীমন্তবর্তী এলাকা দখলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে তালেবান।

প্রদেশের কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, তালেবানের যোদ্ধাদের আসার খবর পেয়ে ইসলাম কালা কাস্টমস অফিসের কর্মকর্তা এবং নিরাপত্তা বাহিনীর অসংখ্য সদস্য সীমান্ত অতিক্রম করে ইরানে পালিয়ে গেছে।

ইসলাম কালা স্থলবন্দর আফগানিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ একটি বাণিজ্যপথ। প্রতি মাসে এ বন্দর থেকে সরকারের আয় প্রায় ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যুক্তরাষ্ট্র ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব সেনা প্রত্যাহার করার ঘোষণা বাস্তবায়নের প্রায় শেষ দিকে রয়েছে।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ড এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আফগানিস্তান থেকে দেশটি ‘৯০ শতাংশের বেশি’ সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহার প্রক্রিয়ার মধ্যে আফগানিস্তানের ৩৪ প্রদেশের প্রায় ২০০ জেলা দখলে নেওয়ার দাবি করেছে তালেবান।

এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরকারের নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের সংঘর্ষ চলছে প্রতিদিন। যুক্তরাষ্ট্র ২০০১ সালে আফগানিস্তানে আগ্রাসন শুরু করে।

দুই দশকের এই যুদ্ধে মার্কিন সামরিক বাহিনীর দুই হাজার তিনশর বেশি সদস্য প্রাণ হারান। আহত হন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর হাজার হাজার সেনা। পাশাপাশি অগনতি আফগান নাগরিক যুদ্ধের শিকারে পরিণত হয়। এই যুদ্ধের জন্য খরচ করা হয় দুই ট্রিলিয়ন ডলারের বেশি অর্থ।