সন্তানের সুরক্ষায় শিক্ষকের পাশাপাশি বাবা-মাকেও ভূমিকা রাখতে হবে

Ministry of Primary and Mass Education, zakir hossain, rtv online

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, জাতির জন্য খুবই খুশির খবর দেড় বছর পর আজ আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে পেরেছি।

দেশবাসীর সঙ্গে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা সবাই খুশি। আমাদের দেশের করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বর্তমানে নিম্নগামী বলেও জানান তিনি।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, কিছু দিনের মধ্যে হয়তো ৫ শতাংশের নিচে নেমে আসবে। তখন আমরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসব এবং শিক্ষা কার্যক্রম পুরোদমে শুরু করতে পারবো।

প্রতিমন্ত্রী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনে রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সেগুনবাগিচা আইডিয়াল মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। এ সময় সাংবাদিক ও অভিভাবকদের সঙ্গে কথা প্রসঙ্গে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে শিক্ষা কর্মকর্তা ও শিক্ষকসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকলেই সচেতন, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা শতভাগ সুরক্ষায় থাকবে। নিশ্চিন্তে আপনাদের সন্তানকে বিদ্যালয়ে পাঠান। তবে বাবা-মাকেও সন্তানের সুরক্ষার ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে।

শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে নিয়মিত মাস্ক (কাপড়ের) পরিধান করতে হবে, শ্রেণিকক্ষে প্রবেশের পূর্বে প্রত্যেককে তাপমাত্রা পরীক্ষা ও সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করে নিতে হবে। তাছাড়া প্রতি বেঞ্চে ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রেখে শিক্ষার্থীদের বসতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। আরো বেশি বেশি বিদ্যালয় ও বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি তিনি নির্দেশ প্রদান করেন।

স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে জনগণের মাঝে লেখনীর মাধ্যমে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য তিনি উপস্থিত মিডিয়া প্রতিনিধিদের প্রতি আহ্বান জানান।