ক্ষমা চাইলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

Boris Johnson

মহামারিতে লকডাউনের মধ্যে সরকারি বাসায় শীর্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে মদ্যপান করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এ ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রয়টার্সের ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, লকডাউনের মধ্যে মদ্যপানের পার্টি দিয়ে চরম সমালোচনার মুখে পড়েছেন বরিস জনসন। এ নিয়ে বুধবার পার্লামেন্টে দেওয়া ভাষণে আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

জানা গেছে, করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে ব্রিটেনে জারি করা প্রথম লকডাউনের সময় মদ্যপানের ওই পার্টির আয়োজন করেছিলেন বরিস জনসন।

প্রধানমন্ত্রী হয়ে কাণ্ডহীন কাজ করার জেরে বরিস জনসনের পদত্যাগ দাবি করেছে বিরোধীরা। সমালোচনার মুখে বরিস জনসন স্বীকার করেছেন, তিনি মদ্যপানের পার্টি দিয়েছিলেন।

২০২০ সালের ২০ মে তিনি ওই পার্টি দিয়েছিলেন। সেটা ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের সরকারি বাসায়। জানা গেছে, বরিস জনসন নিজেও ওই পার্টিতে অংশ নিয়েছিলেন।

এমনকি বরিস জনসনের স্ত্রী ক্যারি সিমন্ডসও ছিলেন সেখানে। গতকাল পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে বরিস জনসন বলেছেন, আমার ও আমার সরকারের ওপর সমালোচকদের ক্ষোভের বিষয়টি বুঝতে পারছি।

তারা মনে করছে যে, সরকারের নিয়মগুলো যারা তৈরি করেন, তারাই বিষয়গুলো মানছেন না। এজন্য ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। সূত্র: রয়টার্স।