‘সন্তান আমাকে হিরো ভাবে, এটিই আমাকে স্বস্তি দেয়’

বাংলাদেশের ইতিহাসে আজমেরী হক বাঁধনই একমাত্র মা, যিনি সন্তানের পূর্ণ অভিভাবকত্ব পেয়েছেন। তার আগে এবং পরে এখনো কোনো নারী সন্তানের অভিভাবকত্ব পাননি। রেহানা মারিয়াম নূর খ্যাত এই অভিনেত্রী নতুন ইতিহাস গড়েছেন।

রোববার বিশ্ব ‘মা’ দিবস উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমে সন্তানের পূর্ণ অভিভাবকের দায়িত্ব পাওয়ার অনুভূতির কথা জানিয়েছেন এই অভিনেত্রী।

অভিনেত্রী বা তারকার তকমা ছাপিয়ে মাতৃত্বকে কিভাবে উপভোগ করেন? এমন প্রশ্নের জবাবে আজমেরী হক বাঁধন বলেন, আমার সবচেয়ে বেশি যা ভালো লাগে তা হলো– আমার মেয়ে তার মা কে হেরে যেতে দেখে না। তার কাছে তার মা ‘হিরো’। এ বিষয়টি আমার ভালো লাগে।

তিনি আরও বলেন, আমার সন্তানের জন্মের পর আমি আমার ভেতরে এক ধরনের শক্তি অনুভব করেছি। আমি আমার মাতৃত্বকে অনেক উপভোগ করেছি, করি। আবার অনেক চাপের মুখেও পড়েছি। আমাদের দেশে মাতৃত্ব ব্যাপারটাকে চাপিয়ে দেওয়ার প্রবণতা অনেক বেশি, উপভোগ করার সুযোগ কম।

তিনি জানান, সিঙ্গেল মাদার হওয়ায় আবার মিডিয়ায় কাজ করেন বলে তিনি মা হিসেবে কতটুকু ব্যর্থ সেই হিসেবটাই বেশি চলে আশপাশে। তবে মা হিসেবে নিজের জায়গা থেকে সন্তানের সঙ্গে একান্ত সময়টা আমি খুব উপভোগ করেন।

তিনি বলেন, ‘সন্তানের বেড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে আমিও যে পূর্ণাঙ্গ একজন মানুষ হয়ে উঠছি এ ব্যাপারটা আমি খুব উপভোগ করি।’

প্রসঙ্গত, মাতৃত্বের অভিভাবকত্ব নিয়ে কিছুদিন আগে হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে আলোচিত নাম ছিল অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। পরে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, মা হিসেবে সন্তান মিশেল আমানি সায়রার পূর্ণ অভিভাবকত্ব পান এই অভিনেত্রী।