আইসিসিতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদনে ক্ষুব্ধ নেতানিয়াহু

গাজায় যুদ্ধাপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) নিজের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদনে ক্ষুব্ধ হয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তিনি নিন্দাও জানিয়েছেন।

হামাসের কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধেও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা চেয়েছেন আইসিসি প্রসিকিউটর।

নেতানিয়াহু বলেন, গণতান্ত্রিক ইসরায়েলকে গণহত্যাকারীদের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে।

তিনি বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, এ তুলনা বাস্তবতার বিকৃতি।

তার এ মন্তব্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কণ্ঠেও প্রতিধ্বনিত হয়েছে।

বাইডেন বলেন, হামাস ও ইসরায়েল সমতুল্য নয়। খবর বিবিসির।

আইসিসির প্রধান প্রসিকিউটর করিম খান বলেন, এটি বিশ্বাস করার যুক্তিসঙ্গত কারণ আছে যে, নেতানিয়াহু ও তার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ত গাজায় যুদ্ধাপরাধ ও মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের জন্য দায়ী।

যুদ্ধাপরাধের দায়ে হামাস নেতা ইয়াহিয়া সিনওয়ারের বিরুদ্ধেও আইসিসিতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন পড়েছে। পাশাপাশি আরও দুই হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়া, মোহাম্মদ আল-মাসরির বিরুদ্ধেও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে।

ইসরায়েল ও এর প্রধান মিত্র যুক্তরাষ্ট্র ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত আইসিসির সদস্য নয়।

৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামলা চালায় হামাস। এরপর গাজায় হামলা শুরু করে ইসরায়েল। আইসিসি প্রসিকিউটর করিম খান হামাস নেতাদের নিধন, হত্যা, জিম্মি, ধর্ষণ ও যৌন সহিংসতা ও নির্যাতনের মতো অপরাধের দায়ে অভিযুক্ত করেন।