নেপালকে নিয়ে বাংলাদেশের ভাবনা, ‘প্রত্যেক দলই সমান’

বিশ্বকাপটা বেশ ভালো কাটছে বাংলাদেশের। তিন ম্যাচের দুটিতে জিতে সুপার এইট প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হারলেও জয়ের খুব কাছাকাছি ছিল দল। এখন গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলবে নেপালের বিপক্ষে।

তারা এখন অবধি টুর্নামেন্টে কোনো জয় পায়নি। কখনও হারাতে পারেনি টেস্ট খেলুড়ে দেশকেও।

এমন ম্যাচের আগেও প্রতিপক্ষের জন্য সমীহই ছিল বাংলাদেশ দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা তানজিম হাসান সাকিবের কণ্ঠে। নেপালকেও সমান গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলছেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে তানজিম বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ছোট দল, বড় দল বলে কিছু নেই। প্রত্যেককে সমানভাবে দেখার চেষ্টা করি। মাত্র ২০ ওভারের খেলা। কখন মোমেন্টাম বদলে যায় কেউ বলতে পারে না। আমরা প্রত্যেক দলকেই সমানভাবে দেখার চেষ্টা করি। প্রতিপক্ষ যে-ই হোক একইভাবে খেলার চেষ্টা করবো। ’

‘প্রত্যেক ম্যাচই আমরা জেতার জন্য খেলি। এই ম্যাচও জেতার জন্য খেলব। আগের ম্যাচে যারা রান করেনি আশা করি এই ম্যাচে রান করে আত্মবিশ্বাস ফিরে পাবে। আমরা চেষ্টা করবো উইকেট টু উইকেট বল করার আর সুপার এইটের আত্মবিশ্বাস কুড়িয়ে নেওয়ার। এদিকেই মনোযোগ থাকবে। ’

নেপাল সবশেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দারুণ লড়াই করেছে। শেষ অবধি তারা ম্যাচ হেরেছে স্রেফ ১ রানে। ওই ম্যাচে দলটির স্পিনাররা বেশ ভালো করেছেন। ম্যাচসেরা হয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার তাবরেজ শামসি। বাংলাদেশও খেলবে একই মাঠে। স্পিনাররাই কি ব্যবধান গড়ে দেবেন?

তানজিম বলেন, ‘উইকেটে কিছু ঘাস আছে, একটু শক্ত মনে হলো। একই উইকেটে খেলা হলে বলতে পারতাম ব্যাটল অব স্পিন, কিন্তু আমরা খেলছি ফ্রেশ উইকেটে। স্বাভাবিক আচরণই আশা করব যতক্ষণ না প্রথম বল হচ্ছে। প্রথম বল দেখে হয়ত উইকেট বুঝতে পারব। তার আগে কোনো সিদ্ধান্তে যাচ্ছি না, ইতিবাচক থাকছি।