যশোরে মারপিট ও চেইন ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় মামলা

jashore map

পারিবারিক বিষয় নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে যশোর সদর উপজেলার শেখহাটি এলাকার একটি বাড়িতে মারপিট হামলা শ্লীলতাহানি ও সোনার চেইন ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

ছোট শেখহাটি হঠাৎ পাড়ার জাকির হোসেনের স্ত্রী জ্যোসনা বেগম ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত নামা আরো ৩/৪ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হচ্ছেন, ছোট শেখহাটি হঠাৎ পাড়ার তোতা বিশ্বাসের ছেলে পারভেজ (২৩), মনিরুলের স্ত্রী শারমিন বেগম (২৮), তোতা বিশ্বাসের স্ত্রী চায়না বেগম (৪৫) ও মৃত মকছেদ বিশ্বাসের ছেলে তোতা বিশ্বাস (৫৩)।

বাদি জ্যোসনা বেগম মামলায় উল্লেখ করেছেন, আসামিরা খুব খারাপ প্রকৃতির লোক। এলাকায় অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকে। আসামিদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে পূর্ব শত্রুতা চলে আসছিলো। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টায় আসামিরাসহ অজ্ঞাত নামা আসমিরা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে আমার বাড়িতে প্রবেশ করে। এসময় আমি বাড়ি একা ছিলাম। আসামিরা বাড়ি ঢুকে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাচ করতে থাকে। প্রতিবাদ করলে আসামি পারভেজ লোহার রড দিয়ে আমার বাম কাধে আঘাত করলে আমি মাটিতে পড়ে যায়। এসময় শারমিন লাঠি দিয়ে আমাকে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকে ও আমার গলা থেকে ১ ভরি ৪ আনা ওজনের একটি সোনার চেইন ছিনিয়ে নেয়। যার আনুমানিক মূল্য ৬২ হাজার টাকা। চায়না বেগম আমার হাত থেকে ১ ভরি ৮ আনা ওজনের দুইটি সোনার রুলি মূল্য ৬৫ হাজার টাকা খুলে নেয়। তোতা বিশ্বাস আমার পরনের শাড়ি টেনে হেচড়ে শ্লীলতাহানি ঘটায় ও আমাকে চড় থাপ্পড় মারে। আমার চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসলে আসামিরা দেমিয় অস্ত্র উচিয়ে আমাকে খুন জখমের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এঘটনায় বুধবার ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুরে কোতয়ালি মামলা হয়।