পেনশনের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে ভাই-ভাবি ও ভাইপোর হাতে গুরুতর জখম

jashore map

পিতার পেনশনের টাকা ভাগবাটোয়া করা নিয়ে আপন ছোট ভাই ও ভাই বৌসহ ভাইপোর হাতে মোস্তাক আহম্মেদ (৬৫) নামে এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছে। এ সময় তার জ্যাকেটের পকেটে থাকা নগদ ৫০ হাজার টাকা ৫শ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় আসামীরা হচ্ছে, যশোর সদর উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের ইছাপুর পশ্চিম পাড়ার মৃত কুদ্দুস মৃধার ছেলে ইয়াকুব আলী, ইয়াকুব আলীর স্ত্রী মোছা. নাছিমা বেগম ও ভাইপো নাজমুল হোসেন।

মোস্তাক আহম্মেদ শনিবার ১২ ডিসেম্বর কোতয়ালি মডেল থানায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে মামলায় বলেছেন, তাদের ফ্যামিলি পেনশনের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে মোস্তাক আহম্মেদ এর সাথে তার ছোট ভাই ইয়াকুব আলীর স্ত্রী মোছা. নাছিমা বেগমের বচসা হয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। গত ৫ ডিসেম্বর সকালে মোস্তাক আহম্মেদ তার দুই নাতনী নিয়ে ইছাপুর পশ্চিম পাড়া জনৈক রবিউলের চায়ের দোকান থেকে চা পান করে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে। সন্ধ্যারাত সোয়া ৭ টায় রবিউলের চায়ের দোকানের সামনে অবস্থানকালে ভাই ইয়াকুব আলী, ভাইয়ের স্ত্রী নাছিমা ও নাজমুল হোসেন গতিরোধ করে। গালিগালাজ শুরু করলে মোস্তাক আহম্মেদ বাধা নিষেধ করলে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে জ্যাকেটের পকেটে থাকা নগদ ৫০ হাজার ৫শ টাকা কেড়ে নেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় মোস্তাক আহম্মেদকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।