যশোরের চার সাংবাদিকসহ সাতজনের নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার

jashore map

যশোরের চিহ্নিত সুদখোর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক জাকিয়া সুলতানা লাকি অবশেষে যশোরের চার সাংবাদিকসহ সাতজনের নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইনের আদালতে নিজে মানসিক ও শারীরিক ভাবে অসুস্থতার দোহাই দিয়ে ওই মামলা প্রত্যাহারের আবেদন জানান। আদালত তার আবেদন মঞ্জুর করেন। এর আগে তিনি একই আদালতে গত ২ নভেম্বর মামলা করেছিলেন।

কয়েকদিনের ব্যবধানে খোলাডাঙ্গার মফিজুর রহমানের মেয়ে আলেয়া সুলতানা আলো ওই লাকির সুদে কারবারের অত্যাচারে তিনবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এক পর্যায় বিষয়টি সাংবাদিকদের নজরে আসে। বিষয়টি নিয়ে দৈনিক গ্রামের কাগজ ও দৈনিক যশোরে সংবাদ প্রকাশ হয়ে। এতে করে তেলে বেগুনে জলে উঠে লাকি। এরপর দৈনিক গ্রামের কাগজ ও দৈনিক যশোরের সম্পাদকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে আদালতে করা মামলা করেন লাকি। আসামি করা হয় দৈনিক গ্রামের কাগজের প্রকাশক ও সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আঞ্জুমানারা, দৈনিক যশোরের প্রকাশক ও সম্পাদক জাহিদ হাসান টুকুন, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নুর ইসলাম। লাকির দায়ের করা মামলার অন্য বিবাদীরা হলেন খোলাডাঙ্গা পশ্চিমপাড়ার লাল্টু মিয়া ও তার স্ত্রী ভুক্তভোগি আলেয়া সুলতানা আলো, মফিজুর রহমানের স্ত্রী ডলি বেগম। অভিযোগ আমলে নিয়ে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইন সিআইডি যশোর জোনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দিয়েছিলেন।

এ মামলার পরবর্তি দিন ধার্য ছিলো আগামী ৪ জানুয়ারী। এর মাঝেই রোববার আদালতে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান লাকি। আদালত তা মঞ্জুর করেন।