যশোরে এনটিভির ক্যামেরা পার্সন সন্ত্রাসী হামলায় আহত

shamim

যশোরে বেসরকারি টিভি চ্যানেল এনটিভির ক্যামেরা পার্সন শামীম রেজা (২৮) সন্ত্রাসী হামলায় আহত হয়েছেন। তিনি চৌগাছা উপজেলা সাঞ্চাডাঙা গ্রামের মোন্তাজ আলীর ছেলে। বর্তমানে কাজীপাড়া আমতলায় ভাড়া বাড়িতে থাকেন।

হামলার সময় সন্ত্রাসীরা শামীমের মোটরসাইকেল ভাংচুর করে, মানি ব্যাগ ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। মানি ব্যাগের মধ্যে ১০ হাজার ৮শ টাকা ছিলো। এঘটনায় শামীম রেজা কোতয়ালী থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

সোমবার দায়েরকৃত অভিযোগে শামীম রেজা বলেছেন, সোমবার (১৯ এপ্রিল) বিকালে প্রেসক্লাব থেকে বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হই। বিকাল সাড়ে ৪টার সময় কাজিপাড়া ডায়মন্ড প্রেস মোড়ে সিহাব স্টোরে দাঁড়ায় বাড়ির মালামাল কেনাকাটা করি। এসময় সাকিব একজন অপরিচিত লোককে বলে রোববার (১৮ এপ্রিল ) পৌরসভার প্রথম মিটিংয়ে ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মেয়রের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ায়। এ কথা শুনে শামিম রেজা বলে সাকিব ভাই রোববার আমি ওই মিটিংয়ের নিউজ কভারের কাজে ছিলাম। এ রকম কোন ঘটনা ঘটেনি। এ কথা বলার সাথে সাথে বিবাদি সাকিব বলে তুই বড় সাংবাদিক হয়েছিস বলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাচ করে। এরপর সাকিব শামিম রেজাকে পিছন দিক থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। পাশে তার বাড়ি থেকে লোহার রড এনে শামীমকে এলাপাতাড়ি মারপিট করে। এতে শামীম দুই পা ও পিঠে গুরুত্বর জখম হয়। শামীম মাটিতে পড়ে গেলে বিবাদি সাকিব তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন মূল্য ১৫ হাজার টাকা ও মানি ব্যাগ নিয়ে নেয়। মানি ব্যাগের মধ্যে ১০ হাজার ৮শ টাকা ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিলো। শামীম ভয়ে দোকানের ভিতর আশ্রয় নিলে সাকিব তার মোটরসাইকেলটি ভাংচুর করে ৪০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। ঘটনার বিষয়ে জানতে পেরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে গেলে সাকিব খুন জখমসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

সন্ত্রাসী সাকিব কাজিপাড়া আমতলা মোড়ের মোঃ সেলিম ওরফে বোচা সেলিমের ছেলে। তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও চাঁবাদির অভিযোগ রয়েছে। পরে আহত শামীমকে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।