বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ী নিহত

ফাইল ফটো

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার বসন্তপুর সীমান্তের বিপরীতে ভারতের হিঙ্গলগঞ্জে সীমান্ত রক্ষীর (বিএসএফএ) গুলিতে এক বাংলাদেশি নাগরিক নিহত হয়েছেন। তিনি পেশায় গরু ব্যবসায়ী ছিলেন। তার মরদেহ বিএসএফের কাছে রয়েছে বলে জানা গেছে।

তবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের ১৭ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ইয়াসিন আলম চৌধুরী বলেন, এ সম্পর্কে কোনো তথ্য আমার কাছে নেই। ঘটনা সত্য কি-না, জানার চেষ্টা চলছে।

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম মোস্তফা জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। নিহত যুবকের নাম-পরিচয়ও জানেন তিনি। ওই যুবকের নাম আবদুর রাজ্জাক (১৯) । তিনি কালিগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের কামদেবপুর গ্রামের রমজান আলী গাজির ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, রাজ্জাক একজন গরু ব্যবসায়ী। গরু কিনতে অবৈধভাবে ভারতে গিয়েছিলেন। সোমবার ভোররাতে বিএসএফের হিঙ্গলগঞ্জ ক্যাম্প সদস্যরা তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে ঘোষপাড়া গ্রামে নিহত হন তিনি।

বিএসএফ পরে মরদেহটি তাদের হেফাজতে নিয়ে যায়। ফেসবুকের মাধ্যমে রাজ্জাকের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন ভাড়াশিমলা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুল খালেক।

মরদেহ ফেরত পাওয়ার জন্য রাজ্জাকের পরিবারের লোকজন বিজিবির বসন্তপুর ক্যাম্পে যোগাযোগ করেছেন। তারা বিজিবির মাধ্যমে মরদেহটি ফেরত আনার চেষ্টা করছেন।

ভাড়াশিমলা ইউপি চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ জানান, রাজ্জাকের মরদেহ ফিরে পাওয়ার জন্য তারা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুল খালেকের নেতৃত্বে বিজিবির মাধ্যমে বিএসএফের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছে।

বিজিবির বসন্তপুর ক্যাম্পের হাবিলদার মো. খলিল জানিয়েছেন, রাজ্জাকের পরিবারের কাছ থেকে তথ্য পাওয়ার পর আমরা বিএসএফের কাছ থেকে বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি। ইতোমধ্যে সেখানে তথ্য পাঠানো হয়েছে।