যশোরে মোটর সাইকেল চুরি, আদালতে জবানবন্দি প্রদান চোরের

Jessore map

যশোর শহরের রেলষ্টেশন মাছ বাজারের গলি থেকে মোটর সাইকেল চুরির সাথে জড়িত ইমন ফকির শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আহমেদের আদালতে স্বেচ্ছায় ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

তিনি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার তারাইল মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত হাফিজুর রহমানের ছেলে। যশোর ডিবি পুলিশের এসআই শামীম হোসেন জানান, ইমন হোসেনকে সম্প্রতি চোরাই মোটর সাইকেলসহ গ্রেফতার করা হয়।

তিনি পুলিশের কাছে স্বীকার করে গত ২৭ আগষ্ট রেলষ্টেশন মাছ বাজারের গলি থেকে বাজাজ ডিসকভার ১২৫ সিসি কালো রংয়ের মোটর সাইকেল যার নাম্বার যশোর হ-১৫-৩২৭৭ ঘাড়ের লক খুলে মুহুর্তের মধ্যে চুরি করে নিয়ে যায়।

চুরির ঘটনায় মোটর সাইকেল মালিক যশোর শহরের নাজির শংকরপুর এলাকার মৃত আবু বক্কার সিদ্দিকের ছেলে রফিকুল ইসলাম রিপন রোববার ১২ সেপ্টেম্বর দিবাগত গভীর রাতে কোতয়ালি থানায় অজ্ঞাতনামা
চোরদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলা রেকর্ড হওয়ার পর তদন্তের দায়িত্ব পান ডিবি পুলিশ। ডিবি পুলিশ চুরি হওয়া মোটর সাইকেলসহ দুই দফায় ১৫টি চোরাই মোটর সাইকেলসহ ১৪ জনকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ইমন ফকির মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি’র এসআই শামীম হোসেনের কাছে স্বীকার করে যশোর শহরের রেলষ্টেশন এলাকার মাছ বাজার থেকে মোটর সাইকেল চুরির বিষয়টি।

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর দুপুরে তাকে অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আহমেদের আদালতে সোপর্দ করা হলে তিনি স্বেচ্ছায় ১৬৪ ধারায় চুরির বর্ণনা করে জবানবন্দি দিয়েছেন।