দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন মোদি, কৃষি আইন বাতিল

norando modi

দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়ে তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দীর্ঘ দিন ধরে চলা আন্দোলনের পর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

হিন্দুস্তান টাইমস ও এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে এ ঘোষণা দেন নরেন্দ্র মোদি।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, আমি দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইছি। আমি বলতে চাই যে, হয়তো আমাদের তপস্যাতেই খামতি ছিল। তাই কৃষি আইন প্রত্যাহার করা হচ্ছে।

এই মাসে শুরু থেকে চলা সংসদ অধিবেশনে এই কৃষি বিল প্রত্যাহার করব। আমি সবাইকে অনুরোধ করব, আন্দোলন ছেড়ে একটি নয়া সূচনা করি। শিগগির আইন প্রত্যাহারের সাংবিধানিক প্রক্রিয়া পূর্ণ করে দেব।

এবার আপনারা সবাই ক্ষেতে ফিরে যান, পরিবারের মধ্যে ফিরে যান। পাঞ্জাব নির্বাচনের আগে ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংয়ের সঙ্গে জোট গড়ার ক্ষেত্রে এই পদক্ষেপ বড় হতে চলেছে বলে মত দিয়েছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

এর আগে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে তিনটি কৃষি বিলে সংশোধন করে আইনে পরিণত হওয়ার পর থেকেই দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্তানে তুমুল প্রতিবাদ-বিক্ষোভ শুরু হয়।

বিশেষত পাঞ্জাবে সেই বিক্ষোভের আগুন তীব্র হতে থাকে। রাস্তা অবরোধ, রেল রোকো-আন্দোলনের মাধ্যমে কৃষি আইনের বিরুদ্ধে নিজেদের প্রতিবাদ জানায় কৃষক সংগঠনগুলো।

কৃষকদের অভিযোগ ছিল, নতুন আইনের ফলে লোকসানের মুখে পড়বেন কৃষকেরা। ফসল নিয়ে তাদের দরাদরির ক্ষমতা কমে যাবে, প্রচলিত ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (এমএসপি) পাওয়া থেকেও বঞ্চিত হবেন তারা।

পাশাপাশি বেসরকারি এবং বড় সংস্থাগুলোর কাছে কৃষিপণ্য মজুত রাখার রাস্তাও খুলে যাবে। যদিও মোদি সরকারের পাল্টা দাবি ছিল, নতুন কৃষি আইনে কোনোভাবে কৃষকেরা বঞ্চনার শিকার হবেন না। এমএসপি ব্যবস্থাও থাকবে।