শত্রুতা ভুলে ভারত-পাকিস্তানকে করোনার বিরুদ্ধে নামতে বললেন শোয়েব

syeb sowrov imran

ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্কটা কখনই উষ্ণ ছিল না। অবশ্যই এর মূল কারণটা রাজনৈতিক। দু’দেশের চিরবৈরী সম্পর্কের জের এসে পড়েছে ক্রিকেট মাঠেও। ২০১৩ সালের পর দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মুখোমুখি হয়নি ভারত ও পাকিস্তান।

অথচ বহুল আকাঙ্ক্ষিত এ লড়াইয়ে তারা মুখোমুখি হয় কেবল আইসিসির আসরে ও এশিয়া কাপে। অনেকাটা ‘বাধ্য’ হয়েই সেখানে মুখোমুখি হয় ক্রিকেট ইতিহাসে বহু মহাকাব্যিক লড়াই উপহার দেয়া দেশ দুটি। করোনা ভাইরাস মহামারিতে জেরবার পুরো বিশ্ব। কঠিন এই সময়ে শত্রুতা ভুলে দু’দেশকে একসঙ্গে লড়াই করার আহবান জানালেন পাকিস্তানের সাবেক গতি তারকা শোয়েব আখতার।

চ্যারিটি ম্যাচ আয়োজন করে করোনা তহবিল গঠনের প্রস্তাব ৪৪ বছর বয়সী সাবেক পেসারের।

তিনি বলেন, ‘এই সংকটময় সময়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ আয়োজন করা যেতে পারে। যেখানে প্রথমবারের মতো কোনও দেশের মানুষ খেলার ফলাফল দেখে বিরক্ত হবে না। বিরাট কোহলি সেঞ্চুরি হাঁকালেও আমরা (পাকিস্তানিরা) হাততালি দেব। আবার বাবর আজম শতরান করলে ভারতীয়রাও হয়তো খুশি হবে। মাঠে যাই ঘটুক না কেন উভয় দলই বিজয়ী হবে।’

‘সিরিজটি আয়োজিত হলে দু’দেশের মধ্যেকার দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না হওয়ার খরাও কাটবে। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের দর্শক চাহিদা সবার জানা। এই সিরিজ থেকে প্রাপ্ত অর্থ দু’দেশের করোনা তহবিলে সমানভাবে দেয়ার ব্যবস্থা থাকবে।’

‘তবে এই পরিস্থিতিতে সিরিজটি আয়োজন করার পক্ষে নই আমি। সবকিছু স্বাভাবিকভাবে হলে আয়োজন করা যেতে পারে। অবশ্যই সিরিজটি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে হবে। যাতায়াতের সুবিধায় চার্টার্ড বিমানের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।’

‘দ্বিপাক্ষিক সিরিজ ক্রিকেটীয় সম্পর্ক উন্নয়নের পাশাপাশি উভয় দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কও পুনরুদ্ধারের পথ তৈরি হবে। এই সময়ে সারা বিশ্বকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করতে হবে। কঠিন পরিস্থিতিতেই কেবল একটি দেশ কিংবা জাতির চরিত্র ফুটে ওঠে।’

শোয়েব আখতার দু’দেশকে শত্রুতা ভুলে এক হয়ে লড়াইয়ের আহবান জানিয়ে বলেন, ‘ভারত যদি পাকিস্তানকে ১০ হাজার ভেন্টিলেটর যন্ত্র উপহার দেয় সেটা আমাদের দেশের মানুষ সারাজীবন কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করবে। যদিও আমরা এটা চাইবো না। শুধু একটা ক্রিকেট সিরিজ হোক সেটাই আপাতত চাওয়া। এটা নির্ভর করবে উভয় দেশের সরকারের সিদ্ধান্তের উপর।’

পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির প্রতিষ্ঠিত ‘শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন’ পাকিস্তানের অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছে। এর প্রশংসা করেন ভারতের দুই সাবেক তারকা ক্রিকেটার যুবরাজ সিং ও হরভজন সিং। এজন্য ভারতীয়দের তোপের মুখে পড়তে হয় যুবরাজ ও হরভজনকে। এ প্রসঙ্গে শোয়েব বলেন, ‘(সমালোচকদের) এরকম আচরণ অমানবিক। এই মুহূর্তে জাতি-ধর্ম নিয়ে ভাবা মূর্খতা। এখন সময় মানবিক হওয়ার।’