ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে যশোরে প্রতিবাদ কর্মসূচি

mohila porishod

‘নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে- গর্জে ওঠো রুখে দাঁড়াও, পর্ণগ্রাফী সাইট বন্ধ কর- করতে হবে, চলো যাই যুদ্ধে- ধর্ষকের বিরুদ্ধে, ধর্ষকদের দ্রুত বিচার কর- করতে হবে, ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেও- দিতে হবে’ এমনই নানা শ্লোগানে শ্লোগানে রাজপথ প্রকম্পিত করে যশোরে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় একযোগে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সামাজিক প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

ঘণ্টাব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে ছিল প্রেসক্লাব যশোরের সামনে থেকে গণমিছিল, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে কালেক্টরেট চত্বরে গণঅবস্থান ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি পেশ।
নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করা ও এরসাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে যশোরে এ কর্মসূচির প্রতি সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য দেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সদস্য সুকুমার দাস, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের যশোর জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারু, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদ হাসান বুলু, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সহসভাপতি মাহবুবুর রহমান মজনু, হেলা সিপিবি সভাপতি অ্যাড. আবুল হোসেন, অ্যাড. আমিনুর রহমান হিরু, উদীচী যশোরের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান খান বিপ্লব, আইডি যশোরের ব্যবস্থাপক বিথীকা সরকার, তির্যক যশোরের আলমগীর হোসেন বাবু, শিক্ষক ব্রাদার টিটো, জয়তী সোসাইটির পক্ষে আব্দুল খালেক প্রমুখ।

কালেক্টরেট চত্বরে গণঅবস্থান শেষে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ যশোর জেলা শাখার পক্ষ থেকে নারী ও শিশুর প্রতি অব্যাহত সহিংসতা, হত্যা, নির্যাতন, ধর্ষণ ও গণধর্ষণ বন্ধ এবং অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপি গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ যশোর জেলা শাখার সহ সাধারণ সম্পাদক সুলতানা রহমান জলি, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারদীনা রহমান এ্যানী, অর্থ সম্পাদক মাহমুদা খানম, লিগ্যাল এইড সম্পাদক অ্যাড. কামরুন নাহার কনা, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুফিয়া খাতুন, শিক্ষা ও সংস্কৃতি সম্পাদক সায়েদা বানু শিল্পী, সদস্য উম্মে মাকসুদা মাসু প্রমুখ।