মিয়ানমারে সামরিক সরকারের বিরুদ্ধে ‘বিপ্লবের’ ডাক

maymaner

মিয়ানমারের সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে বিপ্লবের ডাক দিয়েছেন অভ্যুত্থানের পর লুকিয়ে থাকা রাজনীতিবিদদের নিয়ে গঠিত স্বঘোষিত সরকার। গত নির্বাচনে নির্বাচিত এসব সাংসদরা স্বঘোষিত বেসামরিক সরকার ঘোষণা করে তাদের বৈধতা দাবি করেছেন। স্বঘোষিত সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট মান উইন খিয়াং থান শনিবার ফেসবুকে প্রকাশ্যে ভাষণে বিপ্লবের ডাক দেন।

এনএলডির যে এমপিরা গ্রেফতার এড়াতে পেরেছেন, তারা পালিয়ে নতুন একটি গ্রুপ তৈরি করেছেন, যার নাম কমিটি ফর রিপ্রেজেন্টিং পাইডুংসু হলত্তু (সিআরপিএইচ), যার ভারপ্রাপ্ত প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছেন মান উইন খিয়াং থান। মিয়ানমারের বৈধ সরকার হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দাবি করছে সিআরপিএইচ।

ফেসবুকে দেয়া বক্তব্যে স্বঘোষিত সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সু চির দলের সিনিয়র নেতা মান উইন খিয়াং থান বলেন, এটি আমাদের আমাদের জাতির সবচেয়ে অন্ধকার মুহূর্ত এবং এই সময়ের অবসান হতে আর বেশি দেরি নাই।

খিয়াং থান বলেন, এটা এমন একটা সময় যখন অন্ধকারের বিরুদ্ধে আমাদের নাগরিকদের লড়াই করার ক্ষমতার পরীক্ষা হচ্ছে। অতীতে আমাদের মধ্যে বিভেদ থাকলেও এখন অবশ্যই আমাদের হাতে হাত ধরে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।

তিনি বলেন, নিজেদের আত্মরক্ষার অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে স্বঘোষিত সরকার আইন তৈরির চেষ্টা করছে এবং জন প্রশাসন পরিচালিত হবে অন্তর্বর্তী জন প্রশাসন টিম দ্বারা।

এদিকে মিয়ানমারে সেনা শাসনবিরোধী বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে শনিবার অন্তত আরও ১২ জন নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে ৮০ জনের বেশি বিক্ষোভকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন।