হাসপাতালে বিছানা নেই, আইপিএলে চলছে টাকার ছড়াছড়ি: অ্যান্ড্রু টাই

andro tai

ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) চতুর্দশ আসর ছেড়ে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরেছেন অ্যান্ড্রু টাই। দেশে ফিরে করোনায় বিপর্যস্ত ভারতে আইপিএল চলার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন রাজস্থান রয়্যালস শিবির ছাড়া এই অজি তারকা।

করোনার ভাইরাসে কুপোকাত গোটা ভারতবর্ষ। অক্সিজেনের আকাল দেশজুড়ে। হাসপাতালে পর্যাপ্ত বিছানা নেই, শ্মশানঘাটেও মৃতদেহ সৎকারের স্থান সংকুলান হচ্ছে না। মহামারির এই অভাবের সময়েও অর্থের ছড়াছড়িতে আইপিএল চলছে দোর্দ-প্রতাপে। বিষয়টি মানতে নারাজ অ্যান্ড্রু টাই।

তিনি বলেন, ‘একজন ভারতীয় নাগরিকের দৃষ্টিভঙ্গিতে যদি দেখতে হয় তাহলে আমি বলব কীভাবে বিভিন্ন সংস্থা এবং ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো এবং সর্বোপরি সেদেশের সরকার এই পরিস্থিতিতে আইপিএলে প্রচুর টাকা খরচ করছে, যখন দেশের মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হতে পারছে না। একজন খেলোয়াড়ের নিরাপত্তার দৃষ্টিভঙ্গি থেকে আমরা এখন নিরাপদ কিন্তু আইপিএল কী নিরাপদ থাকবে আগামীদিনে?’
প্রাথমিকভাবে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে রয়্যালস শিবির ছাড়লেও দেশে ফিরে টাই জানান, ‘ দেশের বাইরে আমি কোনোভাবেই আটকে পড়তে চাইনি।’

একইসঙ্গে আইপিএল নিয়ে তার মত একান্তই ব্যক্তিগত বলে জানান টাই। তিনি বলেন, ‘আমি জানি এ ব্যাপারে সকলের মত সমান নয় এবং আমি সকলের মতকে সম্মান করি।
যদি খেলাধুলা এই সময় মানুষের মানসিক অবসাদ দূর করতে পারে তাহলে ঠিক আছে।’

এদিকে বেন স্টোকস-আর্চারদের ইনজুরি, লিভিংস্টোন-টাইদের আইপিএল ত্যাগে বিদেশি ক্রিকেটারের অভাবে ভুগছে রাজস্থান রয়্যালস। এমতাবস্থায় বিদেশি ক্রিকেটার চেয়ে আইপিএলের অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজির কাছে দ্বারস্থ হল রয়্যালস।

শুরুটা হয়েছিল বেন স্টোককে দিয়ে। প্রথম ম্যাচেই চোট পেয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়েছেন ইংলিশ অলরাউন্ডার। রয়্যালসের অবস্থা আরও খারাপ হয় লিয়াম লিভিংস্টোন জৈব বলয়ের ক্লান্তি না নিতে পেরে সরে যাওয়ায়। এরপর খবর আসে অস্ত্রোপচারের পর জোফরা আর্চার খেলার অবস্থায় নেই। সবশেষ ভারতের সাম্প্রতিক কোভিড পরিস্থিতিতে অস্ট্রেলিয়ান ফেরেন অ্যান্ড্রু টাই।

রাজস্থানে এখন রয়েছে মাত্র চার বিদেশি- জস বাটলার, ক্রিস মরি, মোস্তাফিজুর রহমান ও ডেভিড মিলার। অবস্থা এমন যে, মৌসুমের মাঝে এখন লোন উইন্ডোর দিকে তাকিয়ে রাজস্থান। আইপিএলের নিয়ম অনুযায়ী লীগের ২০তম ম্যাচের পর থেকে, অর্থাৎ সোমবার সকালে খুলে গিয়েছে এই উইন্ডো। চরবে ৫৬তম ম্যাচ পর্যন্ত। এই সময়ে মধ্যে অন্যান্য দল থেকে লোনে ক্রিকেটার নিতে পারবে ফ্র্যাঞ্চাইজি দলগুলো। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, রাজস্থান রয়্যালসের অনুরোধের বিষয়ে জানাতে গিয়ে কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছে।