ইসরাইলের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান মালয়েশিয়ার

moinuddin netanenehau

ইসরাইলের বর্বর হামলা থেকে ফিলিস্তিনিদের রক্ষার জন্য কঠোর অবস্থান গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে মালয়েশিয়া।

শনিবার এক বিশেষ বার্তায় প্রধানমন্ত্রী তান শ্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন এ কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিনি এবং তার দেশটির জনগণের আন্দোলনকে রাজনীতি, অর্থনীতি ও নৈতিকতার দিক দিয়ে সবসময় সমর্থন দিয়ে আসছে মালয়েশিয়া। পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য হিউম্যানিস্টিস্ট ট্রাস্ট ফান্ডের (একেএআরপি) মাধ্যমে মালয়েশিয়া গত বছর আলআকসা মসজিদে ১০ হাজার ডলার (৪১,২৫০ রিঙ্গিত) সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

এ ছাড়াও গত বছরের ১০ মে জর্ডানে একটি বিশেষ চার্টার্ড বিমানের মাধ্যমে মালয়েশিয়ার সরকার এক মিলিয়ন ফেস মাস্ক, ৫০০ ফেস শিল্ড এবং ৫ লাখ রাবার গ্লাভসসহ চিকিৎসা সামগ্রী ফিলিস্তিনিদের কোভিড -১৯ মহামারি নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করেছে।

এদিকে ইসরাইলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কঠোর পদেক্ষেপ নিতে রোববার জরুরি বৈঠকে বসছে ইসলামি সহযোগিতা পরিষদ (ওআাইসি)। ভার্চুয়াল বৈঠকে মালয়েশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করবেন বিদেশমন্ত্রী দাতুক সেরি হিশামুদ্দিন তুন হুসেইন।

হিশামুদ্দিন বলেছেন, ইসরাইলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়া ফিলিস্তিনের জনগণের পাশে থাকবে।আগামীকালের বৈঠকে ওআইসির কাছে ইসরাইলের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ার দ্ব্যর্থহীন অবস্থানের কথা জানাবেন তিনি।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিন সম্পর্কে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে ঐক্যমতে পৌঁছানোর জন্য ব্রুনাইয়ের পররাষ্ট্র বিষয়কমন্ত্রী দাতুক সেরি সেতিয়া হাজি ইরানওয়ান মোহাম্মদ ইউসুফ এবং ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেটনো মার্সুডির সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ রয়েছে।

মালয়েশিয়ার বিদেশমন্ত্রী সম্মিলিতভাবে ফিলিস্তিনে, ইসরাইলি হামলার তীব্র নিন্দা জানানো কথা বলেন। পাশাপাশি ইসরাইলকে অবিলম্বে অধিকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চল জুড়ে আগ্রাসন বন্ধের আহ্বান জানান।

এ সময় তিনি জানান, ইসরাইলি সরকার কর্তৃক নিপীড়িত ফিলিস্তিনের পাশে থাকবে মালয়েশিয়া। দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের পাশাপাশি সহায়তা অব্যাহত থাকবে।