লাদাখে উত্তেজনা, বৈঠকে বসছে ভারত ও চীন

indian army

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে পূর্ব লাদাখে পরিস্থিতি উত্তপ্ত। বহু বার সেনা সরানো এবং সমঝোতার জন্য বৈঠক করা হয়েছে ভারত ও চীনের শীর্ষ পর্যায়ে। তার পরও বার বার পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়েছে প্রকৃতনিয়ন্ত্রণরেখায়।

রাজনৈতিক এবং সেনা স্তরে দু’দেশের বিস্তর বৈঠকের পর প্যাংগং হ্রদ এলাকা থেকে গত মাসে সেনা সরিয়ে নিয়েছে ভারত ও চীন। তবে নতুন করে মাথাব্যথা হয়ে দাঁড়িয়েছে হট স্প্রিংস এবং গোগরা হাইট।

এবার লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা সরানো নিয়ে শনিবার ১২ দফার কোর কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠকে বসতে চলেছে ভারত ও চীন। এর আগে ১১বার বৈঠক করেছেন দুই সেনার কোর কমান্ডারেরা। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে চীনা এলাকায় মলডোতে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সেনা সূত্রে খবর, হট স্প্রিংস এবং গোগরা হাইট থেকে সেনা সরানো নিয়ে দু’দেশের মধ্যে এই বৈঠক। এর আগেও বেশ কয়েক দফায় বৈঠক হয়েছে। কিন্তু সামাধান সূত্র বের হয়নি। তাই শনিবারের এই বৈঠক ঘিরে যথেষ্ট আশা জাগছে।

মনে করা হচ্ছে, এই দুই পয়েন্টে সেনা সরানো নিয়ে একটা সমঝোতায় আসবে দুই দেশ। হট স্প্রিংস এবং গোগরা হাইটে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় দু’দেশের ৮০-১০০ জন জওয়ান মোতায়েন থাকে বলে সূত্রের খবর। তবে শনিবারের বৈঠকে সবচেয়ে যে বিষয়টির ওপর নজর থাকবে তা হল দেপসাং।

এই জায়গা থেকে চীন সেরা সরাতে রাজি হয় কিনা সেদিকে নজর রাখছে ভারত। সেনা সূত্রে খবর, ভারত সেনা সরাতে রাজি আছে। তবে সমপরিমাণ সেনা সরালেই তবে এই পথে হাঁটবে নয়াদিল্লি।

গত ১৪ জুলাই তাজিকিস্তানে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকের পর চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই-এর সঙ্গে বৈঠক করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। সেখানে স্থির হয় পরবর্তী সেনা কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক দ্রুত ডাকা হবে। তারপরই এই বৈঠক ডাকা হলো।