বাংলাদেশ জলসীমায় মাছ শিকার করতে এসে ১৪ ভারতীয় জেলে আটক

ফাইল ফটো

বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকারের অভিযোগে একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১৪ ভারতীয় জেলেকে আটক করেছে কোস্টগার্ড।

মঙ্গলবার ভোর রাতে মোংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৫ নটিক্যাল মাইল দূরে বঙ্গোপসাগরে সুন্দরবন উপকূলের ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকা থেকে ভারতীয় জেলেদের আটক করা হয়।

আটক জেলেদের বাড়ি ভারতের দক্ষিণ-চব্বিশ পরগোনা জেলার বিভিন্ন এলাকায় বলে জানা গেছে। এসময় এফবি মা-আম্বিয়া-২ নামের ভারতীয় ফিশিং ট্রলারে থাকা ১ হাজার ২শ ২০ কেজি বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ও জাল-দড়ি জব্দ করা হয়।
মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন সদর দপ্তর গোয়েন্দা কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জানায়, এফবি মা-আম্বিয়া-২ নামের একটি ফিশিং ট্রলার নিয়ে ভারতীয় জেলেরা বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ জলসীমার ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় ঢুকে মাছ ধরছিল। তখন ওই এলাকায় টহলরত কোস্টগার্ড সদস্যরা তাদেরকে আটক করে মোংলায় নিয়ে আসে। পরে তাদেরকে থানা পুলিশে হস্তান্তর করা হয়।

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, আটককৃত ভারতীয় জেলেদের বিরুদ্ধে সামুদ্রিক মৎস্য অধ্যাদেশ ১৯৮৩ এর ২২ ধারায় মামলা দায়েরের পর বিকালে বাগেরহাট আদালতে পাঠালে বিচারক তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, এর আগে একই অভিযোগে ওই এলাকা থেকে ৬৩ ভারতীয় জেলেকে আটক করে নৌবাহিনীর সদস্যরা। নৌবাহিনী গত ১ অক্টোবর ১৫ জন, ৪ অক্টোব ২৩ জন ও ১৪ অক্টোবর ১১ জন, ২২ অক্টোবর ১৪ জনকে এবং সর্বশেষ ১০ ডিসেম্বর ১৪ জনকে আটক করা হয়। এ নিয়ে মোট ৭৭ জন আটক ভারতীয় জেলে বর্তমানে বাগেরহাট কারাগারে রয়েছেন।