যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে কয়েদীর মৃত্যু

Jashore C. Jail

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা মোশারফ হোসেন (৬০) নামে এক কয়েদীর (নং ৩৫১৬/এ) মৃত্যু হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া ৪টার দিকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার এম আব্দুর রশিদ তার মৃত্যু নিশ্চিত করেন।

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার এর জেলার তুহিন কান্তি খান বলেন, মোশারফ হোসেন খুলনা জেলার ফুলতলা থানার ঢাকুরিয়া গ্রামের আব্দুল মোল্ল্যার ছেলে। সে ফুলতলা থানার একটি হত্যা মামলায় (জিআর/৮৯) আসামী। ২০০৭ সালের এপ্রিল মাসের ২৯ তারিখে খুলনা আদালতের বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ ৩০ বছর সশ্রম কারাদন্ড দেন এবং ঐ মামলায় দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ২বছর সশ্রম কারাদন্ড এবং অন্য একটি ধারায় আরও পাঁচশ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১বছর সশ্রম কারাদন্ডের দন্ডাদেশ দেন।

তুহিন কান্তি বলেন, মামলাটির আসামী মোশারফ হোসেন খুলনা কারাগারে আটক ছিলো। চলতি বছরের মার্চ মাসের ৮তারিখে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে আসে। জ্বর, সর্দি, কাশিজনিত রোগে অসুস্থ হলে আজ ভোর সোয়া ৪টায় কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার এম আব্দুর রশীদ বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। জ্বর, সর্দি, কাশি ও শাসকষ্টের কারনে তার মৃত্যু হতে পারে। লাশের ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসার পরে মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানা যাবে।

কোতয়ালী থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, হাসপাতালে বন্ধী থাকা একজন কয়েদীর মৃত্যু হয়েছে। একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতে পুলিশ সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করবে।