ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে এফবিআই প্রধানকে চিঠি

trump

জর্জিয়ায় নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বরত কর্মকর্তার সঙ্গে ফোনালাপের প্রসঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি তদন্ত করতে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এফবিআইয়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে প্রতিনিধিত পরিষদের দুজন সদস্য।

সোমবার ক্যালিফোর্নিয়া থেকে নির্বাচিত কংগ্রেস সদস্য টেড লিউ ও নিউইয়র্কের ক্যাথলিন রিস এক চিঠিতে এফবিআই প্রধান ক্রিস্টোফার রাইকে বলেন, একজন কংগ্রেস সদস্য ও সাবেক কৌঁসুলি হিসেবে, আমরা মনে করি, নির্বাচন কেন্দ্রীক অপরাধের ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন। এ ক্ষেত্রে প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি তদন্ত করতে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি।

তবে মার্কিন ইতিহাসে এমন কোনো বিচারের দৃষ্টান্ত নেই বলে জানা গেছে। ফেডারেল আদালত থেকে প্রেসিডেন্ট নিজেকে ক্ষমা করিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করতে পারেন।

যদিও কোনো অঙ্গরাজ্য আইনে তার অপরাধের দায় থেকে মুক্তি নেয়ার সুযোগ প্রেসিডেন্টের নেই।

কেন্দ্রীয় ও জর্জিয়ার নির্বাচনী আইনে পরিষ্কার করে বলা আছে, জ্ঞানত ভোট জালিয়াতি-কারচুপিতে ইন্ধন দেয়া বা উৎসাহিত করা দণ্ডযোগ্য অপরাধ। নিউইয়র্কের সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল প্রিট ভারারা এমনটিই জানিয়েছেন।

ট্রাম্প ২ জানুয়ারি জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের সেক্রেটারি অব স্টেট ব্র্যাড রাফেনসপারজারকে ফোন করেন। তাদের দীর্ঘ ফোনালাপের অডিও দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট গত রোববার প্রথম প্রকাশ করলে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ট্রাম্প কেন যে প্রেসিডেন্ট হিসেবে থেকে যেতে চাইছেন, তা তার বোধগম্য নয়।

শনিবার ঘণ্টাজুড়ে আলোচনায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত জো বাইডেনের কাছে নিজের পরাজয় পাল্টাতে জর্জিয়ার রিপাবলিকান সেক্রেটারি অব স্টেট ব্রাড রাফেনস্পারগারের কাছে সহায়তা দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।