পুলিশ সদস্যকে মারপিট ও বিপুকে নির্যাতনের ঘটনায় তদন্ত টিম যশোরে

jashore map

যশোর শহরের পুরাতন কসবাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গত ১১ জানুয়ারি পুলিশ সদস্যকে মারপিট, শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনের শিকার ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বাড়ি পুলিশি হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের একটি টিম যশোর এসেছে।

তিন সদস্যের টিমের প্রধান হিসেবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের (জননিরাপত্তা বিভাগ) যুগ্মসচিব ড. মোহাম্মদ বশিরুল আলম। অন্য দুই সদস্য হলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের (জননিরাপত্তা বিভাগ) উপসচিব তহমিনা বেগম ও খুলনার পুলিশ সুপার সফিউল্লাহ।

জেলা প্রাশাসন সূত্রে জানা যায়, শনিবার (৩০ জানুয়ারি) রাতে তিন সদস্যের এই টিম যশোর এসে পৌছায়। রোববার সকাল থেকে (৩১ জানুয়ারি) টিমের সদস্যরা তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেন। রোববার দিনভর তারা তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

সূত্র জানায়, তদন্ত টিমের সদস্যরা ঘটনার সূত্রপাত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ সংশ্লিষ্ট স্থানগুলিতে গিয়ে তদন্ত করেন ও ঘটনা সম্পর্কে অবগত বা প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে ঘটনার বর্ণনা শোনেন।

এছাড়া ভুক্তভোগী যে সব আওয়ামী লীগ নেতাদের বাড়িতে পুলিশি হামলা হয়েছে তাদের কাছে ঘটনা শোনেন।
পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম মোস্তফা জানান, রোববার (৩১ জানুয়ারি) সকালে তারা যশোর সার্কিট হাউজে তদন্ত টিমের কাছে তাদের বাড়িতে পুলিশি হামলা ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপুকে ১১ জানুয়ারির পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনের ঘটনার বর্ননা দেন। এসময় শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. আসাদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপুসহ কয়েকজন নেতাকর্মী সার্কিট হাউজে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে পুলিশের পক্ষ থেকে পুলিশ সুপার মোহম্মদ আশরাফ হোসেন পুলিশ সদস্যকে মারপিটের ঘটনার বিষয়ে তদন্ত টিমের কাছে লিখিত প্রতিবেদন জমা দেন বলে পুলিশের একটি সূত্রে জানা গেছে।