বাঘারপাড়ায় রাত পোহালেই ভোট, ব্যালট যাবে সকালে

vote

রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) প্রতিক্ষীত যশোরের বাঘারপাড়া পৌরসভা নির্বাচন। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিতে পৌর এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলেছে উপজেলা প্রশাসন। মাঠে রয়েছে বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রিটানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তানিয়া আফরোজ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ‘প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে একজন ম্যাজিস্ট্রেটসহ ১২ জন ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে থাকবেন একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। নয়টি কেন্দ্রে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট, দুইজন এসআই ও ছয়জন কনসটেবল উপস্থিত থাকবেন। দুই প্লাটুন বিজিবি দুইটি গাড়িতে করে পৌর এলাকা টহল দেবে। সাথে থাকবে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেটও। সেক্টর ইনচার্জ হিসেবে থাকবেন যশোরের সহকারি পুলিশ সুপার (নাভারন সার্কেল) জামাল আল নাসের। সহায়তা দেবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (যশোর সদর) অপু সরোয়ার।’

তিনি (রিটানিং কর্মকর্তা) আরও জানান, ‘নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু এবং গ্রহণযোগ্য করতে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা মাঠে কাজ করছেন। শনিবার সন্ধ্যার মধ্যে ব্যালট পেপার বাদে সব মালামাল কেন্দ্রে কেন্দ্রে পোঁছে গেছে। ভোটের দিন সকালে ব্যালট পেপার কেন্দ্রগুলোতে পৌঁছে দেওয়া হবে।’

এদিকে, চতুর্থ ধাপের এ পৌরসভা নির্বাচনে এখানে মোট পাঁচজন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতায় নেমেছেন। এছাড়া মাঠে আছেন ২৮ জন সাধারণ ও নয়জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী।

দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক কামরুজ্জামান বাচ্চু, ধানের শীষ প্রতীকে সাবেক মেয়র ও পৌর বিএনপির সভাপতি আব্দুল হাই মনা, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান বিএনপি থেকে বহিস্কৃত সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু তাহের সিদ্দিকী (জগ), জাতীয় পার্টির নাঙ্গল প্রতীকে মহম্মদ আলী ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাতপাথা প্রতীকে এনামুল হক নির্বাচনী যুদ্ধে মাঠে আছেন।

উল্লেখ্য, বাঘারপাড়া পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছে ৭ হাজার ৪শ’ ৯২ জন। এর মধ্যে পুরুষ তিন হাজার ৫শ’ ৩২ জন ও মহিলা ভোটার তিন হাজার ৯শ’ ৬০ জন। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।