যশোরে গৃহবধূ নির্যাতনের অভিযোগে তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা

jashore map

দুই লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে মারপিটসহ নির্যাতনের অভিযোগে জামাতা, বিয়াই শ্বশুর ও জামাতার বোনের বিরুদ্ধে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

মামলায় আসামীরা হচ্ছে, যশোর সদর উপজেলার বলাডাঙ্গা শ্রীকন্ঠনগর গ্রামের গিয়াস তরফদারের ছেলে বাবুল তরফদার, মৃত মোসলেম তরফদারের ছেলে গিয়াস তরফদার ও নগদ যশোর শহরের বারান্দীপাড়া ফুলতলার হাবিবুর রহমানের স্ত্রী মোছাঃ পারভীন সুলতানা।

যশোর শহরের মোল্যাপাড়া ঢাকা রোড প্রাইমারী স্কুলের সামনে কবির হোসেনের স্ত্রী মোছাঃ ফাতেমা আক্তার রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত গভীর রাতে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, বাবুল তরফতারের সাথে তার মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস ওরফে স্বর্ণার (২৪) ৫ বছর আগে ইসলামী তরিয়ত মোতাবেক বিয়ে হয়। ঘর সংসার করাকালে স্বর্না এক মেয়ে সন্তানের মা হন। তার নাম মাইশা। বিয়ের পর থেকে জামাতা বাবুল তরফতার তার পিতা ও বোনের প্ররোচনায় স্বর্ণার কাছে ২লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের জন্য নির্যাতন করলেও স্বর্ণা ঘর সংসারের কারণে মুখ বুঝে স্বামী ও শ্বশুর এবং ননদের নির্যাতন সইতে থাকে। এক পর্যায় স্বর্ণার মাা ফতেমা আক্তার বিষয়গুলো জানার পর মেয়ের সুখের কথা ভেবে জামায়কে যৌতুক বাবদ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করে। যৌতুকের টাকা দেওয়ার কিছুদিন স্বর্ণার উপর নির্যাতন কম থাকলেও কিছুদিন পর পুনরায় ১লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে নির্যাতন শুরু করে। যৌতুকের জন্য স্বর্ণার পিতার বাড়ি থেকে দেওয়া ২লাখ ১০ হাজার টাকা মূল্যের ৩ ভরি স্বর্নের গহনা বিক্রি পর্যন্ত করে দেন। যৌতুকের দাবি তুলে স্বামী বাবুল তরফতার তার পিতা ও বোনের প্ররোচনায় গত ১৩ ফেব্রুয়ারী বেলা ১১ টা থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারী সকাল পৌনে ৯ টায় গৃহবধূ স্বর্ণার উপর নির্যাতন চালাতে থাকে। স্বর্ণাকের তার ননদের বাড়ি হতে উদ্ধার করে স্বর্ণার মাতা মোছাঃ ফাাতেমা আক্তার মেয়ে স্বর্ণাকে উদ্ধার করে নিজ হেফাজতে জিন্মায় গ্রহন করেন। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।