‘হেফাজতকে সেই শাপলা চত্বরের হুশিয়ারি’

hefajot bikhov

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বিক্ষোভে হতাহতের ঘটনায় গত শনিবার (২৭ মার্চ) বিক্ষোভ ও রোববার হরতাল ডাকে হেফাজতে ইসলাম। বিক্ষোভ কর্মসূচিতে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক হামলা, ভাংচুর, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। কয়েকটি থানায় হামলা, ভাংচুর, অস্ত্র লুটসহ বহু হতাহতের ঘটনা ঘটে।

হরতালের দিনও ঢাকাসহ সারা দেশে গাড়ি ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, সড়ক অবরোধ, হামলার ঘটনা ঘটে চলেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চেষ্টা করলে তাদের ওপর হামলা, এক পর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। রেলস্টেশনসহ বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা-অগ্নিসংযোগ করা হয়। এই দুই দিনে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে গত রোববার পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া ১০ ও চট্টগ্রামে ৪ জন নিহত হন।

এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রায় আটক বছর আগে ৫ মে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে হেফাজতের অবস্থানের বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, ২০১৩ সালে এই বিএনপি-জামায়াত মিলে দেশে তাণ্ডব চালিয়েছিল। তারা মনে করেছিল, এই তাণ্ডব চালিয়েই আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটানো হবে। কিন্তু তাদের সেই তাণ্ডব কঠোর হাতে দমন দমন করে শেখ হাসিনা দেশকে এই পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। এবারও প্রয়োজন হলে কঠোরভাবে তাণ্ডব দমন করেই উন্নয়নের ধারা বজায় রাখা হবে।

মঙ্গলবার পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (পাবিপ্রবি) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ স্মারক ম্যুরাল ‘জনক জ্যোতির্ময়’ উদ্বোধনের আগে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ হুশিয়ারি দেন।

পরে তিনি পাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে প্রধান অতিথি হিসেবে ‘জনক জ্যোতির্ময়’-এর শুভ উদ্বোধন করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম রোস্তম আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স, পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. নুরুজ্জামান বিশ্বাস, পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবির, কুষ্টিয়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আ কা ম সরওয়ার জাহান, কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, সংরক্ষিত মহিলা আসনের (পাবনা-সিরাজগঞ্জ) সংসদ সদস্য নাদিরা ইয়াসমিন জলি, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার খসরু পারভেজ, পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোশারোফ হোসেন।

পাবিপ্রবি উপাচার্য প্রফেসর ড. এম রোস্তম আলী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে পাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে যে ম্যুরাল স্থাপন করা হলো তাতে একটি ছবির মাধ্যমে পুরো বঙ্গবন্ধুকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘জনক জ্যোতির্ময়’ নামক ম্যুরালের মাধ্যমে। ‘জনক জ্যোতির্ময়’-এর মাধ্যমে ফুটে উঠেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যক্তিত্ব, জীবনব্যাপী আন্দোলন, সংগ্রাম, বিশালত্ব, মানবিকতা, মহানুভবতা, দৃঢ়তা, দেশপ্রেম তথা পুরো জীবনচিত্র এবং বাংলার মানুষের প্রিয় মানুষ বঙ্গবন্ধুর হাস্যোজ্জ্বল মুখ।এর মাধ্যমে এই প্রজন্ম জাতির পিতাকে জানার পাশাপাশি তার আলোয় আলোকিত হবে। এই ম্যুরাল যুগে যুগে আমাদের চেতনায় শান দেবে।