যশোরে প্রাক্তন স্ত্রীর হাত থেকে রক্ষা পেতে এস আইয়ের আদালতে মামলা

jashore map

প্রাক্তন স্ত্রীর নানা ধরণের হয়রানীর হাত থেকে রক্ষা পেতে যশোর আদালতে মামলা করেছেন এক এসআই। আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে দায়িত্ব দিয়েছেন।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, পশ্চিম বারান্দীপাড়ার জেসমিন বেগম, বাদশা মিয়া, বাপ্পী, জোসনা ও সদর উপজেলার গাইদগাছী গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে ফারুক হোসেন।

গত ২২ মার্চ আদালতে মামলাটি করেছেন যশোর সদর উপজেলার রঘুরামপুর গ্রামের বাসিন্দা আজিজুল হক সবুজ। তিনি সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা উপজেলার সরুলিয়া গ্রামের আনোয়ারুল হকের ছেলে। বর্তমানে তিনি পুলিশের এসআই হিসেবে ঢাকাতে কর্মরত রয়েছেন।

মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, একছেলে এক মেয়ে রেখে ২০১৭ সালের ৩০ জুলাই তার প্রথম স্ত্রী মারা যায়। এরপর তিনি ২০১৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর বিয়ে করেন। বিয়ের পর জেসমিনকে রঘুরামপুর গ্রামে নিয়ে আসেন। এরপর দুই সন্তানকে রেখে কর্মস্থলে চলে যান সবুজ। সবুজ চলে যাওয়ার পর জেসমিন ওই দুই সন্তানের উপর অত্যাচার শুরু করেন। ছেলে মেয়ে বাইরে গেলে প্রাক্তন দুই স্বামী ফারুক হোসেন ও মিলন হোসেনের সাথে মেলামেশা করতে থাকে। এসব কাজে বাধা দিলেও শোনেন না জেসমিন। পরে জেসমিনকে ২০২১ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারী তালাক দেন সবুজ। এতে করে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে জেসমিন। ২৮ ফেব্রুয়ারী আদালতে সবুজের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা ঠুকে দেয় জেসমিন। সবুজের বিভিন্ন আত্বীয়দের বাড়িতে যেয়ে হুমকি ধামকি দিতে থাকে জেসমিন। গত ২ মার্চ রাতে সন্ত্রাসীদের নিয়ে সবুজের বাড়িতে হামলা চালায় ও ভাংচুর করে জেসমিনসহ অন্য আসামিরা। এখন তারা বিভিন্ন ধরণের হুমকি ও চাকরিচ্যুতের ভয় দেখাচ্ছে সবুজকে।