দক্ষিণাঞ্চলে নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ার আভাস

river

টানা বর্ষণ হওয়ায় এবং বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়ায় দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ার আভাস দেখা দিয়েছে।

বুধবার (২৮ জুলাই) পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র এ আভাস দিয়েছে।

পাউবোর বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া অধিদফতরের গাণিতিক মডেলের তথ্যানুযায়ী, শুক্রবার নাগাদ দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য অঞ্চল, দক্ষিণাঞ্চল ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল উপকূলীয় এলাকাগুলোতে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে।

ফলে এ সময়ে দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য অঞ্চল, দক্ষিণাঞ্চল ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের নদীগুলোর পানির সমতল দ্রুত বাড়তে পারে।

উত্তরে যমুনা-ব্রহ্মপুত্রের পানি হ্রাস পাচ্ছে। ব্রহ্মপুত্রের পানি স্থিতিশীল থাকতে পারে। তবে যমুনার পানি কমার প্রবণতা অব্যাহত থাকবে। গঙ্গা নদীর পানির সমতল বাড়চ্ছে। কমছে পদ্মার পানি।

এছাড়া মনু নদী ব্যতীত উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অপার মেঘনা অববাহিকার সব প্রধান নদীগুলোর পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে, যা অব্যাহত থাকতে পারে।

এদিকে দশদিনের এক পূর্বাভাসে পাউবো জানিয়েছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি ৩০ জুলাই পর্যন্ত হ্রাস পাবে। তারপর বাড়তে পারে। আপাতত এ দুই নদীর পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করার শঙ্কা নেই।

গঙ্গা-পদ্মার পানি সমতল স্থিতিশীলভাবে বাড়তে পারে আগামী সাতদিন। তবে দশদিনে বিপৎসীমা অতিক্রমের সম্ভাবনা নেই। আবার ঢাকার চারপাশের নদ-নদীর পানির সমতলও বাড়ার সম্ভাবনা নেই।

এবং বিপৎসীমা অতিক্রমের শঙ্কাও নেই। পাউবোর পর্যবেক্ষণাধীন বিভিন্ন নদ-নদীর ১০৯টি পয়েন্টের মধ্যে বুধবার বেড়েছে ৩৬টি পয়েন্টের পানি, কমেছে ৭১টি পয়েন্টের পানির সমতল। অপরিবর্তিত আছে একটি পয়েন্টের পানির সমতল। একটি পয়েন্টের তথ্য সংগ্রহ এখনও শুরু হয়নি। সূত্র: বাংলা নিউজ।