যশোরে পুত্রবধু ও তার প্রেমিকের বিরুদ্ধে শ্বশুরের আদালতে মামলা

jashore map

পুত্রবধু ও তার প্রেমিকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে যশোর আদালতে মামলা করেছে শ্বশুর। রোববার ২২ আগস্ট মামলাটি করেছেন মণিরামপুর উপজেলার ইত্যা গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে কোরবান আলী।

আসামিরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার মাহমুদকাঠি গ্রামের লুৎফর রহমানের মেয়ে বিলকিস খাতুন, তার ভাই রবিউল ইসলাম ও পুত্রবধুর প্রেমিক যশোর ভৈরব হোটেলের কর্মচারী বাবু। অভিযোগটি আমলে নিয়ে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার অভিযোগে বাদী উল্লেখ করেন, বাদীর ছেলে জামাল হোসেনের সাথে ১৮ বছর আগে বিলকিস খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে দুটি পুত্র সন্তান রয়েছে। গত তিনবছর আগে বিলকিসকে রেখে তার ছেলে বিদেশে যায়।

এখনো সে বিদেশেই রয়েছে। এরমাঝে বিলিকিস বিভিন্ন অজুহাতে যশোর শহরে আসা যাওয়া করে ও ভৈরব হোটেলে কর্মরত বাবুর সাথে পরিচয় হয়। পরে পরকিয়ায় জড়িয়ে যায়। আর একাজে সহযোগিতা করে বিলকিসের ভাই রবিউল।

হঠাৎ বিলকিসন জানায় তার সন্তানদের পড়াশোনার জন্য যশোর শহরে থাকার প্রয়োজন। সেই অজুহাতে গত ১৮ আগস্ট বাদীর বাড়ি থেকে ১টি পালোংগো, দুইটি খাট, প্রিজ, ড্রেসিন টেবিল সহ বিভিন্ন আসবাব পত্র ও নগদ দুই লাখ টাকা নিয়ে যশোরে ভাড়া বাড়িতে উঠে।

অপর দুই আসামির সহযোগিতায় সুজলপুর গ্রামের জামতলায় বসবাস শুরু করে। এরপর গত ২০ আগস্ট বিলকিস তার দুই ছেলেকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়।

এ বিষয়ে বাদী জানতে চাইলে বিলকিস জানায় সে আর জামালের সংসার করবেনা। নদগ টাকা ও আসবাবপত্র ফেরত চাইলেও তা দেবেনা বলে খুন গুমের হুমকি দেয়। মামলায় বাদী আরও উল্লেখ করেন, বিলকিস এখন সেই বাসায় বৈধ ভাবে বাবুর সাথে বসবাস করছে।