আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ‍শুরু করার আহ্বান তালেবানের

biman air flying

আফগানিস্তানের তালেবান সরকার দেশটিতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট শুরু করার আহ্বান জানিয়েছে। এয়ার লাইনসগুলোকে তারা সর্বাত্মক সহায়তা করতে প্রস্তুত বলেও অঙ্গীকার করেছে গোষ্ঠীটি।

আল আরাবিয়ার খবরে বলা হয়েছে, অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করার পর তালেবান দেশের অর্থনীতিসহ সব কিছু সচল করার উদ্যোগ নিয়েছে। এছাড়া তারা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জনেরও চেষ্টা করছে।

রোববার তালেবান সরকারের পররাষ্ট মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, কাবুল বিমানবন্দরের সমস্যা সমাধান করা হয়েছে।

১৫ আগস্ট তালেবান কাবল নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর রাজধানীতে অবস্থিত হামিদ কারজাই বিমানবন্দর থেকে আন্তর্জাতিক ও বাণিজ্যিক ফ্লাইট স্থগিত করা হয়।

এরপর গত ৩ সেপ্টেম্বর কাতার ও তুরস্কের সহায়তায় আফগানিস্তানে অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচলের ঘোষণা দেয় রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন আরিয়ানা আফগান এয়ারলাইনস।

আফগানিস্তানে বর্তমান স্বল্প সংখ্যক আন্তর্জাতিক ফ্লাইট যাত্রী ও খাদ্যসহ অন্যান্য সহযোগিতা সামগ্রী বহন করছে। কিন্তু স্বাভাবিক বাণিজ্যিক ফ্লাইট এখনও শুরু হয়নি।

তালেবান সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্দুল কাহার বালখি বলেন, আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু না থাকার কারণে আফগানিস্তানে বহু নাগরিক বিদেশে আটকা পড়েছে।

তাছাড়া মানুষজন পড়ালেখা ও চাকরির জন্যও বিদেশে যেতে পারছে না। তিনি বলেন, কাবুল বিমানবন্দর এখন অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের জন্য পূর্ণ প্রস্তুত।

সকল এয়ারলাইনসকে ইসলামিক আমিরাত অব আফগানিস্তান সহায়তা করতে প্রস্তুত।