যশোরে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা

jessore murder

যশোরে হাসেম আলী নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। তিনি সদর চাঁচড়া ইউনিয়নের ভাতুড়িয়া গ্রামের রহিম উদ্দীনের ছেলে।

নিহতের ছেলে আছর আলী জানান, বুধবার রাত সাড়ে সাত টার দিকে তারা তিন বন্ধু প্রতিবেশি আবকর আলীর খেঁজুর বাজানে চুরি করে রস খেতে যান। এ সময় স্থানীয় সন্ত্রাসী মিন্টু, মান্নান, ইমরানসহ সাত আট জন তাকে মারপিট করেন। রাত আট টার দিকে সন্ত্রাসীরা আবারও তাদের বাড়িতে হামলাকরে বাড়ি ঘর ভাংচুর করে। হাসেম আলী বাধাদিতে এলে হামলাকারীরা তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জখম করে। বৃহস্পতিবার সকাল নয় টার দিকে হাসেম আলী চিকিৎসার জন্যে ভ্যান যোগে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আসছিলেন। পথিমধ্যে ভাতুড়িয়া বাজার অদূরে পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা তার ভ্যান গতিরোধ করে আবারও মারপিট করে। এই সময় সন্ত্রাসীরা জানান, হাসপাতালে গেলে তাকে হত্যা করা হবে। প্রাণের ভয়ে হাসেম আলীকে পরিবারের লোকজন পুররায় বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যান। সেখানে বিনা চিকিৎসায় বিকাল চার টায় তার মৃত্যু হয়।

পরিবারের লোকজন সন্ধ্যায় পুলিশে জানালে চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কাজল মল্লিক জানান, হাসপাতালে আনার কমপক্ষে চার-পাঁচ ঘন্টা আগেই হাসেম আলীর মৃত্যু হয়েছে।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশের একটি টিম পাঠানো হয়েছে। আসামীদের আটকের জন্যে অভিযান চলছে।