এবার পাকিস্তানে করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত

korona virus

আঁতুড়ঘর উহান ছেড়ে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে নভেল করোনাভাইরাস। ইতোমধ্যে বিশ্বের ৩২টি দেশ ও অঞ্চলে ভাইরাসটির প্রার্দুভাব ছড়িয়ে পড়েছে।

চীন থেকে উৎপত্তি হয়ে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস সুদূর ব্রাজিলে গিয়ে পৌঁছেছে।

এবার প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থাবা দিল পাকিস্তানে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত দুইজনের মধ্যে কভিড-১৯ এর ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। খবর আল জাজিরার।

বুধবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর হেলথ বিষয়ক স্পেশাল অ্যাসিস্ট্যান্ট ড. জাফর মির্জা করোনা সংক্রমণের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এছাড়া একই বার্তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের জনস্বাস্থ্য উপদেষ্টা বুধবার একটি টুইট করেছে।

টুইটে দেশটির জনস্বাস্থ্য উপদেষ্টা জাফর মির্জা বলেন, পাকিস্তানে করোনাভাইরাসে দুই জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ দুই রোগীকে ইতিমধ্যে কোয়ারেন্টাইন করে ক্লিনিকাল স্ট্যান্ডার্ড প্রোটোকল অনুসারে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বর্তমানে তাদের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ খবরে এখনো আতঙ্ক না হতে অনুরোধ করছি।

দুই জন করোনারোগী শনাক্তের কথা জানালেও তাদের মধ্যে কি করে ভাইরাসটি সংক্রমিত হলো বা তা ইতিমধ্যে চীন ভ্রমণে গিয়েছিলেন কিনা সে বিষয়ে কিছুই জানাননি জাফর মির্জা।

তবে ধারণা করা হচ্ছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পার্শ্ববর্তী দেশ ইরান থেকে এটি ছড়িয়েছে।

এ বিষয়ে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় সিন্ধ প্রদেশের স্বাস্থ্য দফতরের একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, করাচিতে ২২ বছর বয়সী এক ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি সম্প্রতি ইরান সফর করেছেন। সেখান থেকেই তিনি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসে ইরানে ১৯ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ১৩৯ জন। চীনের বাইরে এই ভাইরাসে সর্বাধিক ইরানেই মারা গেছে।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে ইরানেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

এ খবরের মধ্যেই ইরানের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তান। তবে সীমান্ত বন্ধ করেও এই ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকানো যায়নি।