লাউয়ের খোসায় দূর হবে ব্রণের দাগ

lifestyle

শরীর ঠাণ্ডা রাখতে এবং পেটের সমস্যা দূর করতে লাউ ভীষণ উপকারী। লাউয়ের পাশাপাশি লাউয়ের খোসাও ভাজি করে কিংবা বিভিন্ন পদ্ধতিতে খাওয়া হয়। তবে জানেন কি? লাউয়ের ফেলনা এই অংশটুকুও ব্যবহার করা যেতে পারে ত্বকের যত্নে।
লাউয়ের খোসায় রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ। যা সরাসরি ত্বকের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। এতে করে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। তবে জেনে নিন কীভাবে লাউয়ের খোসা ব্যবহার করে ত্বক পরিচর্যা করবেন-

> লাউয়ের খোসা ও চন্দন গুঁড়া ত্বকের নির্জীবতা দূর করতে পারে। এজন্য প্রথম ধাপে খোসা ভালো করে বেটে অথবা ব্লেন্ড করে নিন। এরপর এতে চন্দন গুঁড়া মিশিয়ে পুরো মুখের ত্বকে সমানভাবে ম্যাসাজ করুন। এরপর শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার এই নিয়মে লাউয়ের খোসা ব্যবহারে ত্বক তার স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ফিরে পাবে।

> লাউয়ের খোসা ও গোলাপ জল ব্যবহারে ব্রণের প্রাদুর্ভাব কমে যায়। এজন্য প্রথমে লাউয়ের খোসা রোদে শুকিয়ে এরপর বেটে অথবা ব্লেন্ড করে নিতে হবে। পরবর্তীতে গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ত্বকের আক্রান্ত স্থানে ব্যবহার করুন। অন্তত ২০ থেকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে এরপর মুখ ধুয়ে নিন। এ উপায়ে লাউয়ের খোসা ব্যবহারে ব্রণের সমস্যা কমার পাশাপাশি ব্রণের দাগও দূর হবে।

> রোদে পুড়ে যাওয়া ত্বকের ট্যান দূর করে লাউয়ের খোসা। এর জন্য লাউয়ের খোসা ব্লেন্ড করে এতে সমপরিমাণ টক দই মিশিয়ে নিয়ে ট্যান হওয়া স্থানে ব্যবহার করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।