গালওয়ানে অসংখ্য চীনা সেনা নিহতের দাবি রাজনাথের

raj nath

গালওয়ান সংঘর্ষে ভারতীয় সেনাদের হাতে বিপুল সংখ্যক চীনা সেনার মৃত্যু হয়েছে বলে লোকসভায় দাবি করেছেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

পূর্ব লাদাখ পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার লোকসভায় দ্বিতীয় দিনে বিস্তারিত কথা বলেন তিনি।

এ সময় মূলত সমস্যা কোথায় ও গত কয়েক মাসে কী কী হয়েছে, তা বিস্তারিতভাবে সংসদে বিবৃতি দেন রাজনাথ সিং। খবর হিন্দুস্তান টাইমস ও আনন্দবাজার পত্রিকার।

ভারত চীনের সীমান্ত বিতর্কের কথা উল্লেখ করে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ইতিহাসের ওপর ভিত্তি করে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মাধ্যমে যে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা নির্ধারিত হয়েছে, চীন সেটা মানতে চায় না। তার জন্যই লাদাখে আমরা অগ্নিপরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রশংসা করে রাজনাথ বলেন, আমাদের জওয়ানরা বেইজিংকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে। গালওয়ান সংঘর্ষে ভারতের ২০ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু চীনের তার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আবার যেখানে সংযম দেখানোর দরকার, জওয়ানরা সেখানে সংযম ও ধৈর্য দেখিয়েছে। এই শৃঙ্খলা ও শৌর্যের জন্য শুধু সংসদ নয়, সারা দেশবাসীর ভারতীয় সেনার পাশে দাঁড়ানো উচিত।

প্রসঙ্গত, প্যাংগংয়ের দক্ষিণপ্রান্তকে কেন্দ্র করে বর্তমানে ভারত-চীন দ্বন্দ্ব চরমে। ৪৫ বছর পরে গুলি চলে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায়। এখনও ভারতের নিয়ন্ত্রিত চূড়া থেকে মাত্র ২০০ মিটার দূরে দাঁড়িয়ে আছে চীনা বাহিনী।

অন্যদিকে, গালওয়ানসহ কয়েকটি পয়েন্ট থেকে চীনা সেনা সরালেও প্যাংগংয়ের উত্তরপ্রান্ত, গোগরা পোস্টে এখনো তাদের দখলে রয়েছে।

ভারতীয় সেনার বরাতে জানানো হয়, ৪৫ বছর পরে যেখানে গুলি চলে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সেই মুকপারি থেকে ২০০-৩০০ মিটার দূরেই চীনা সেনা অবস্থান করছে। ফিঙ্গার ৩-৪ চীনা বাহিনীর দখলে।