যশোরে দিন দুপুরে দোকান খেকে প্রায় দু’লাখ টাকা চুরি

jashore map

দিন দুপুরে দোকানে কেউ না থাকার সুযোগে একটি সংঘবদ্ধ চোরের দল ক্যাশ ড্রয়ার ভেঙ্গে দ্রুত ১ লাখ ৮৬ হাজার টাকা চুরি করেছে। এসময় রহমত আলী (৩০) নামে চোরের সক্রিয় সদস্যকে ঘটনার পরপর জনগনের সহায়তায় ধরে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। সে যশোরের সীমান্তবর্তী বেনাপোল পোর্ট থানার অন্তর্গত নামাজ গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় রোববার রাতে মামলা হয়েছে। তবে চুরি যাওয়া টাকা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

যশোর শহরের বেজপাড়া গয়ারাম রোডস্থ মৃত রমেশ পালের ছেলে সুমন পাল বাদি হয়ে মামলায় বলেছেন,শহরের বড় বাজার গোহাটা রোডে মেসার্স মা মনসা নামক সুতা ও রশির দোকান রয়েছে তার। ১০ জানুয়ারী রোববার দুপুর ১২ টা বেজে ২৫ মিনিটে তিনি দোকান হতে বের হয়ে উত্তর পাশে একটি দোকানের পরে বলরাম পালের দোকানে যান। সেখান থেকে ২০ মিনিট পর দোকানে ফিরে দেখেন দোকানের সামনে থাকা সাদা রংয়ের পাঞ্জাবী পরা এক লোক দ্রুত সটকে পড়ে। দোকানের মধ্যে তাকিয়ে দেখেন এক যুবক দ্রুত পালিয়ে যাচ্ছে। সুমন পাল আশপাশের লোকের সহায়তায় উক্ত যুবককে গ্রেফতার করে। পরে তাকে গণপিটুনী দিলে সে স্বীকার করে তার নাম ঠিকানা। এ সময় তার কাছ থেকে স্ত্রুড্রাইভার উদ্ধার করে। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। দোকানের ক্যাশ ড্রয়ার খোলার সময় দেখেন তার ভাঙ্গা ড্রয়ারের মধ্যে রাখা ১লাখ ৮৬ হাজার টাকা নেই।