বাঘারপাড়ার রবিউল বাঁচতে চায়

robiul

সবারই ইচ্ছে করে আরো দীর্ঘ সময় এই পৃথিবীতে বাঁচতে। কিন্তু বিধির বিধানকে ফেলে দেয়ার সাধ্য পৃথিবীতে যে কারো নেই। তারপরও মানুষ আশা নিয়ে বাঁচে, চেষ্টা করে বাঁচার। যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর গ্রামের প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ লুৎফর রহমানের ছেলে রবিউল ইসলাম আর সবার মতোই বাঁচতে চান। ফিরতে চান স্বাভাবিক জীবনে।

কিন্তু পঞ্চাশ বছর বয়সে এসে রবিউলের দুটো কিডনীই দিনদিন নিষ্কিয় হয়ে যাওয়ায় চরম বিপাকে পড়েছে পরিবারটি। অভাব অনটনের সংসারে সমাধানের কোন উপায় নেই! সাপ্তাহে দু’দিন কিডনি ডায়ালোসিস করতে খরচ হয় প্রায় ১২ হাজার টাকা। প্রতি সপ্তাতে এ টাকা জোগাড় করতে হিমসিম খেতে হচ্ছে অসহায় পরিবারটিকে। এখন মানুষের দয়ার ওপর ভর করে আছে পরিবারটি। কিন্ত এভাবে কতদিন! চিকিৎসক বলেছে দুটো কিডনির মধ্যে একটি ছোট হয়ে যাচ্ছে। অন্যটি প্রায় অকেজো। কিডনি প্রতিস্থাপন করতে ব্যয় ২০ লক্ষাধিক টাকা। চিকিৎসকের এমন কথায় পরিবাবের সদস্যরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে।

জানা গেছে, রবিউল একজন কৃষক। নিজের কোন কৃষি জমি নেই। অন্যের জমিতে চাষাবাদ করে তার সংসার চলতো। দুই মেয়ে ও এক ছেলে তার। ছেলেটা ৮ম শ্রেণির ছাত্র। বড় মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন সহায় সম্বল বিক্রি করে। মুক্তিযোদ্ধা বাবার পরিচয়ে ঋণ নিয়ে মাতাগোজার ঠাঁই করে নিলেও খেয়ে না খেয়ে চলছে তাদের সংসার।

স্থানীয় বাসিন্দা শেখ হারুন-অর-রশিদ বলেন, রবিউল একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। প্রতিবেশী হিসেবে ‘আমরা যতটুকু পারি সাহায্য সহযোগিতা করছি। কিন্তু এভাবে কতদিন? সমাজের বিত্তবানদের এ ব্যাপারে এগিয়ে আসা উচিত।

রবিউলের স্ত্রী ফুলি বেগম বলেন, গত এক বছর ধরে সে কোন কাজ করতে পারে না, দূরে কোথাও ঘুরতে যেতে পারে না। খাওয়া-দাওয়াও খুব সীমিত। ঠিকমতো চলাফেরা করতে পারেনা। সবসময় ক্লান্তি অনুভব করে। দুটো কিডনি অকোজো হয়ে পড়ায় চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছি। প্রতি সপ্তাহে প্রায় ১২ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। ইতিমধ্যে বিক্রি করার মতো যাকিছু ছিলো-তা বিক্রি করেছি। এখন চলছি মানুষের দয়ায়। এ সময় তার স্বামীকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেন ফুলি বেগম।

আবারও স্বাভাবিক হতে পারেন শেখ রবিউল ইসলাম, যদি তাঁর সুচিকিৎসা সম্ভব হয়। সহায়তায় ইচ্ছুকরা যোগাযোগ করতে পারেন এবং সহায়তা করতে পারেন। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা : সোনালী ব্যাংক, বাঘারপাড়া শাখা, যশোর। সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর : ২৩০৩৬৩৪০২৮৭৮৩। যোগাযোগ ও বিকাশ নম্বর : ০১৯৯৫-৩৭৩৫৭৩ (পারসোনাল)।