মেঘনায় বিপদসীমার ৬৯ সে.মি. উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে

river

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগ ও এর কাছাকাছি এলাকায় সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে ভোলার মেঘনা ও তেতুলিয়া নদী উত্তাল হয়ে উঠেছে।

শুক্রবার দুপুরে মেঘনা নদীতে বিপদসীমার ৬৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে জোয়ারের পানি প্রবাহিত হয়। উত্তাল জোয়ারের পানিতে জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

ভোর থেকেই হালকা ঘূর্ণিবাতাস বইছে। সেই সাথে থেমে থেমে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ছে। তবে কোথাও কোন ক্ষয়-ক্ষতির সংবাদ পাওয়া যায়নি।

ভোলার পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ জানান, সাগরে সৃষ্ট লঘু চাপের প্রভাবে নদীতে জোয়ারের পানি বেড়েছে। শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় মেঘনা নদীতে বিপদসীমার ৬৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়েছে বলে রেকর্ড করা হয়।

তিনি আরও জানান, ভোলায় ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ নেই। তাছাড়া জোয়ারের পানিতে বেড়িবাঁধ হুমকি মুখে পড়ার কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

ভোলার সাগর মোহনার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ চরকুকুরি মুকুরির ইউপি চেয়ারম্যান হাসেম মহাজন জানান, নিম্নচাপের প্রভাবে সাগর বেশ উত্তাল হয়ে উঠেছে। স্বাভাবিকের চেয়ে পানির উচ্চতা বেড়েছে। জোয়ারের পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় তারা যথাসাধ্য সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন। সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন