রামেক হাসপাতালে করোনায় আরও ৬ জনের মৃত্যু

hosital

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় একজন এবং উপসর্গ নিয়ে পাঁচজন মারা গেছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে তারা মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে করোনা সংক্রমণে নওগাঁর একজন মারা গেছেন। আর করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে পাবনার তিনজন, রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন করে মারা গেছেন।

এই একদিনে চারজন পুরুষ এবং দুজন নারী মারা গেছেন। তাদের চারজনের বয়স ৬১ বছরের ওপরে। এ ছাড়া ৫১-৬০ বছর বয়সী একজন এবং ৪১-৫০ বছর বয়সী একজন মারা গেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে চারজনের। এ ছাড়া নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) একজন এবং ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে মারা গেছেন।

এদিকে ১৯২ শয্যার রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন ৮০ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৮১। বর্তমানে রাজশাহীর ৪০ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১৩ জন, নাটোরের চারজন, নওগাঁর ছয়জন, পাবনার ১১ জন, কুষ্টিয়ার তিনজন, সিরাজগঞ্জের একজন, মেহেরপুরের একজন এবং বগুড়ার একজন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

হাসপাতালে করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৩ জন। করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৫৫ জন। করোনা ধরা পড়েনি ভর্তি ১২ জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৬ জন। এই এক দিনে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৩ জন। এর আগে বৃহস্পতিবার রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৬০ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা ধরা পড়েছে ৯ জনের নমুনায়।

একই দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে আরও ১৮৫ জনের। এর মধ্যে করোনা ধরা পড়েছে আটজনের নমুনায়। পরীক্ষার অনুপাতে রাজশাহীর ৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ, জয়পুরহাটের ১১ দশমিক ১১ শতাংশ এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।