মারিওপোলের পরিস্থিতি ‘জটিল ও দুঃখজনক’: পুতিন

putin

ইউক্রেনের মারিওপোলের বর্তমান পরিস্থতিকে ‘জটিল ও দুঃখজনক’ বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেসের সঙ্গে বৈঠক শেষে মারিওপোলের বর্তমান পরিস্থিতি প্রসঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট এ মন্তব্য করেন। খবর বিবিসির।

পুতিন বলেন, মারিওপোলের পরিস্থিতি ‘জটিল ও দুঃখজনক’। অবরুদ্ধ ওই শহরে রুশ সেনাদের অভিযান আর চলছে না। এদিকে যুদ্ধ থামাতে দুই দেশের মধ্যে আলোচনার বিষয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, অনলাইন ফরম্যাটে ইউক্রেনের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত থাকবে।

আশা করি আলোচনা থেকে ইতিবাচক ফল পাওয়া যাবে। গুতেরেসকে পুতিন বলেন, আমরা এখনও প্রত্যাশা করি কূটনৈতিক পন্থায় একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে পারব।

রাশিয়া সম্প্রতি বন্দরনগরী মারিওপোল দখলে নেওয়ার দাবি করে। যদিও আজভস্টল স্টিল মিলে এখনও বহু ইউক্রেনীয় সেনা ও বেসামরিক নাগরিক আটকে রয়েছে।

পুতিন অভিযোগ করে বলেন, ইউক্রেনের সেনারা আজভস্টল স্টিল প্ল্যান্টে বেসামরিক নাগরিকদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে।

ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর থেকে মারিওপোল অবরুদ্ধ করেছে রেখেছিল রুশ সেনারা। এর কারণ হলো— মারিওপোল আজভ সাগরের এমন এক জায়গায় অবস্থিত যা কৌশলগতভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এটি ক্রিমিয়া উপদ্বীপে রাশিয়ান বাহিনী এবং পূর্ব ইউক্রেনে মস্কো-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী সেনাদের বিভক্ত করে রেখেছে। এটি দখলের মাধ্যমে মস্কে ক্রিমিয়ার সঙ্গে স্থলপথে সরাসরি সংযোগ তৈরি করতে পারবে।

এ ছাড়া মারিওপোল অন্যতম প্রধান বন্দরনগরী। স্বাভাবিক সময়ে, এখানকার জাহাজ বিশ্বজুড়ে শস্য রপ্তানি করে। ফলে এ শহরের নিয়ন্ত্রণ রাশিয়াকে বিশেষ সুবিধা দেবে এটি বলার অপেক্ষা রাখে না।