কেশবপুরে নকল সোনার বার দেখিয়ে অভিনব প্রতারণা

fake gold news

যশোরের কেশবপুরে অভিনব প্রতারণার শিকার হয়ে চন্দনা দাসী নামে এক গৃহবধূ গলার চেইন ও এক জোড়া কানের দুল খুইয়েছেন। ঘটনাটি শনিবার সকাল ১১ টার দিকে কেশবপুর ভায়া ফকির রাস্তা সড়কে মাঝ পথে ঘটেছে। এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে।

জানা গেছে, মনিরামপুর উপজেলার জুরনপুর গ্রামের নেপুল দাসের স্ত্রী চন্দনা দাসী তার বাবার বাড়ি কেশবপুর উপজেলার হাসানপুর থেকে ইজিবাইকে শশুর বাড়ী যাচ্ছিল। প্রতিমধ্যে কেশবপুর পৌরসভা এলাকার মধ্যকুল তেলপাম্প নামক স্থান হতে এক জন যাত্রী সেজে ইজিবাইকে ওঠে। কিছু দূর যাওয়ার পর ঐ যাত্রী বলেন, আমি দুই ভরি ওজনের একটি সোনার বার, সাথে ৬০ টাকা আর সোনার দোকানের প্যাডে লেখা একটি চিঠি পেয়েছি। আমার মেয়ের বিয়ে, ভালই হল, এই সোনার বারটি এক লক্ষ টাকার বেশী বিক্রয় হবে। লোকটি আমাকে বলল, বৌদি দেখেন তো সোনা কি না? আমি বললাম সোনাই তো। তখন প্রতারক বলে, বৌদি আপনি এই সোনা বারটি নেন আর আমাকে আপনার গলার চেইন ও কানের দুল জোড়া দুটি দেন। আপনি পরে দুই জোড়া চেইন, হাতের কানের বানিয়ে নিবেন। অনেক লাভবান হবেন। পাশে বসা দুই যাত্রীও নেওয়ার জন্য উৎসাহিত করেন। আমি ভাল মনে করে চেইন ও কানের দুল জোড়া খুলে দিলাম। মনে মনে ভাবলাম খুব লাভ করেছি। পরে সোনার দোকানে নিয়ে দেখালে দোকানদার বলেন, এটা আসল সোনার বার নয়। আপনি ধোকা খেয়েছেন।

এভাবে ছয়আনা ওজনের সোনার চেইন ও তিন আনা ওজনের এক জোড়া কানের দুল হারিয়ে দরিদ্র গৃহবধূ কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এ ঘটনায় ঐ গৃহবধূ কেশবপুর থানায় নিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।