ঝিনাইদহে কলেজছাত্র নিখোঁজের ৪ দিন পর লাশ উদ্ধার

Jhenidah death body recovary

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার আউশিয়া গ্রামে নিখোঁজের ৪ দিন পর সুজন হোসেন (২০) নামের এক কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে ওই গ্রামের ধান ক্ষেতের বোরিং ঘর (সেচ পাম্পের ঘর) থেকে মাটিচাপা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত সুজন হোসেন আউশিয়া গ্রামে মালয়েশিয়া প্রবাসী জিল্লুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, গত রোববার বিকেলে বাড়ি থেকে বের হয়ে জমিতে সার দেওয়ার জন্য কেনার উদ্দ্যেশে শৈলকুপা বাজারে যায় সুজন হোসেন। এরপর থেকেই সে নিখোঁজ ছিল। এ ঘটনায় শৈলকুপা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে তার স্বজনরা। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘটনার পরপরই সাকিব ও নাজমুল নামে দুই জনকে আটক করে। পরে হৃদয় নামে আরো একজন কে আটক করে। তার দেয়া তথ্য মতে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, কিছু কিশোর এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত বলে ধারনা করা হচ্ছে। টাকার জন্য এ ঘটনা ঘটাতে পারে।

নিহতের স্বজনরা জানান, শৈলকুপার হাজামপাড়ার রাকিব নামের এক যুবকের কাছে সুজন টাকা পেত। রোববার বিকেলে শৈলকুপা বাজারে সার কেনার সময় রাকিবের ছোট ভাই সাকিব টাকা দেওয়ার কথা বলে মোটর সাইকেল যোগে সুজনকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসে। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিল সে। ঘটনার পর থেকে সাকিব পলাতক রয়েছে।