যশোরের মণিরামপুরে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

Monirampur Housewife

যশোরের মণিরামপুরে পারভীন সুলতানা (২৮) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার গভীররাতে মণিরামপুর উপজেলার হেলাঞ্চি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

পারভীনের স্বামী আজিজুর রহমান মালয়েশিয়া প্রবাসী।

নিহতের ভাই তরিকুল ইসলাম অভিযোগ করেছেন, ১৪ বছর আগে তার বোনের সাথে আজিজুরের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ৯ ও ৭ বছর বয়সী দুটো ছেলেমেয়ে রয়েছে। অভাব অনটনের সংসার বিধায় তারা আজিজুরকে বিদেশে পাঠান। কিন্তু বিদেশ থেকে টাকা পাঠালেই বোনের ভাসুর আলিম ও তার স্ত্রী সেই টাকা হাতিয়ে নিতেন। এই নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ লেগেই থাকতো। এই বিরোধের জের ধরে শনিবার রাতে বোনের ভাসুর ও তার স্ত্রী তাকে মারপিট করে হত্যা করেছে। পরে তারা প্রচার করে, পারভীন বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

তিনি দাবি করেন, বোন বিষপান করলে তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন থাকার কথা নয়। খবর পেয়ে অমরা রাতেই তাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসি।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আহমেদ তারেক শামস একই বিভাগের ডাক্তার সোহানুর রহমানের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, রাতে এক গৃহবধূকে হাসপাতালে আনা হয়। হাসপাতালে আনার ঘণ্টা দুয়েক আগে তার মৃত্যু হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

মণিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, যতদূর জানি, ওই গৃহবধূ বিষপান করেছেন। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। তদন্ত না করে এ ব্যাপারে কিছুই বলতে পারছি না।