ইরাকে ১৩ তুর্কি পণবন্দীকে হত্যা করলো পিকেকে

turky news

তুরস্কে নিষিদ্ধ ঘোষিত সশস্ত্র সংগঠন কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) যোদ্ধারা উত্তর ইরাকে পণবন্দী ১৩ তুর্কি নাগরিককে হত্যা করেছে। রোববার তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকার এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানান।

বিবৃতিতে তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানান, অপহরণের পর ওই ১৩ তুর্কি পণবন্দীকে উত্তর ইরাকের গারা অঞ্চলে পাহাড়ি এক গুহায় গুলি করে হত্যা করে পিকেকে যোদ্ধারা। তাদের বেশিরভাগকেই মাথায় গুলি করা হয়।

উত্তর ইরাকে পিকেকের বিরুদ্ধে তুরস্কের চলমান ক্ল-ঈগল ২ অভিযানের মধ্যেই এই ১৩ তুর্কি পণবন্দীকে হত্যা করা হলো।

হুলুসি আকার তার বিবৃতিতে বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে পরিস্কার হয়েছে আমাদের নিষ্পাপ ও নিরস্ত্র ১২ নাগরিককে মাথায় গুলি করে শহীদ করা হয়েছে এবং অন্য একজনকে কাঁধে গুলি করে শহীদ করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের ক্ল-ঈগল ২ অভিযানের কার্যক্রম চলার সময় এক সংঘর্ষের পর ওই গুহা নিয়ন্ত্রণে নেয়া হলে আমাদের অপহৃত এই ১৩ নাগরিকের লাশের সন্ধান পাওয়া যায়।’

তিনি জানান, ওই সংঘর্ষে ৪৮ পিকেকে যোদ্ধা নিহত হয়েছে এবং দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপরদিকে সংঘর্ষে তিন তুর্কি সেনা নিহত ও অপর তিনজন আহত হয়েছেন।

সূত্র : ডেইলি সাবাহ