সুবর্ণজয়ন্তীর শুভক্ষণে জমকালো উৎসবে মাতলো জেইউজে

juj news

মহান স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিকে স্মরণ করে রাখতে যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন (জেইউজে) জমকালো আয়োজন করেছে। সুবর্ণজয়ন্তীর শুভক্ষণে রোববার (২৮ মার্চ) একগুচ্ছ কর্মসূচি পালন করেছে জেলার পেশাদার সাংবাদিকদের ঐতিহ্যবাহী এ সংগঠনটি।

প্রথম পর্বে ছিল প্রচারবিমুখ মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইসাহাক আলীকে সংবর্ধনা প্রদান ও সংক্ষিপ্ত আলোচনা।

জেইউজে সভাপতি ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুলের সভাপতিত্বে আলোচনা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু।

অতিথি ছিলেন সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা একরাম-উদ-দ্দৌলা, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব কবীর এবং প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন। জেইউজের সাধারণ সম্পাদক এইচ আর তুহিনের সঞ্চালনায় এ পর্বে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইসাহাককে সংবর্ধিত করা হয়। প্রধান অতিথি সংবর্ধিত বীর মুক্তিযোদ্ধার হাতে জেইউজের উপহার সামগ্রী তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তৃতায় বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধ করে এ দেশ স্বাধীন করেছেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অভূতপূর্ব অবদান কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করা আমাদের নৈতিক ও জাতীয় দায়িত্ব। সংবর্ধনা দেওয়ার মাধ্যমে তাদের বীরত্বের প্রতি সম্মান জানানো নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় কাজ। জেইউজের এ ধরনের আয়োজনের প্রশংসা করে তা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে অনুভূতি ব্যক্ত করে সংবর্ধিত বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইসাহাক বলেন, সাংবাদিকদের সংগঠন থেকে সংবর্ধনা পাওয়া অত্যন্ত আনন্দের। নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে করছি। সংগঠনের এ ধরনের উদ্যোগকে তিনি সাধুবাদ জানান।

প্রথম ধাপের আয়োজন শেষে দ্বিতীয় পর্বে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে একে একে চাঁদেরহাট, উদীচী, পুনশ্চ, শেকড়, সুরধুনী, সুরবিতানের শিল্পীরা একক ও দলীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে অনুষ্ঠানস্থল মাতিয়ে রাখেন। আর বিবর্তন যশোরের শিল্পীদের পরিবেশনায় নাটক ‘পেজগি’ উপভোগ করে বিমোহিত হন সকলে।