শুধু সামরিক উপায়ে আফগানিস্তানে জেতা সম্ভব নয়: যুক্তরাষ্ট্র

Afgan

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে উদ্ধৃত করে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেছেন, শুধু সামরিক উপায়ে আফগানিস্তানে জেতা সম্ভব নয়।

এএফপির খবরে বলা হয়েছে, হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি এমন এক সময় এ মন্তব্য করলেন যখন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো সেনারা আফগানিস্তান ত্যাগ করছে। আগামী আগস্টের শেষ নাগাদ আফগানিস্তান ছাড়ছে মার্কিন সেনারা।

বিদেশি সেনাদের চলে যাবার খবরে আশান্বিত তালেবান আবার চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। তারা বেশ কিছু জেলায় তাদের আধিপত্য বিস্তার করেছে। বিদেশি বাহিনী পুরোপুরি আফগানিস্তান ত্যাগ করার পর নতুন করে আবার গৃহযুদ্ধ বাধার আশংকা রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শুক্রবার এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জেন সাকি বলেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেন মনে করেন, শুধু সামরিক উপায়ে আফগানিস্তানে যুদ্ধে জেতা সম্ভব নয়। সামরিক বাহিনী প্রত্যাহার করা হলেও আগামী দিনগুলাতেও যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানের নিরাপত্তা ও মানবিক সহায়তা প্রদানে কাজ করে যাবে।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন ডিসি ও পেনসিলভানিয়ায় সন্ত্রাসী হামলা চালানোর পর আফগানিস্তানে হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে যুক্তরাষ্ট্র।

তৎকালীন বুশ প্রশাসন ৯/১১ এর হামলায় আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী সংগঠন আল-কায়েদার যোগসূত্র রয়েছে-এমন ঘোষণা দিয়ে সে সময় তালেবানদের দখলে থাকা আফগানিস্তানে আশ্রয় নেওয়া আল-কায়েদার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে।

প্রায় দুই দশকের এই যুদ্ধ শেষের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর সেনারা ইতোমধ্যে দেশটির সবচেয়ে বড় বাগরাম বিমানঘাঁটি ত্যাগ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফাওয়াদ আমান টুইটার বার্তায় বলেন, আফগান বাহিনী বাগরাম বিমানঘাঁটির নিরাপত্তার দায়িত্ব নেবে। তারাই সেখান থেকে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাবে।