রাজশাহী মেডিকেলে আরো ২২ জনের মৃত্যু

hosital

গত ২৪ ঘন্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ১ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। এদের মধ্যে ৩ জন পজেটিভ, একজন নেগেটিভ হওয়ার পর এবং ১৬ জন উপসর্গে মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে জুন মাসের ৩০ দিনে এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেছেন ৩৭৭ জন। এর মধ্যে ১৭২ জনই মারা গেছেন করোনা শনাক্তের পর। বাকিরা উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

রামেক পরিচালক জানান, নতুন মৃতদের ১৪ জন রাজশাহীর (পজেটিভ ১১, উপসর্গে ৫), চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১ জন (উপসর্গে ১), নাটোরের ১ জন (উপসর্গে), নওগাঁয় ৫ জন (পজেটিভ ১, উপসর্গে ৩ ও নেগেটিভ হওয়ার পর ১) ও ঝিনাইদহের ১ জন। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় রামেক হাসপাতালে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬৬ জন। এর মধ্যে রাজশাহীর ৪৭, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৭, নাটোরের ৪, নওগাঁর ৪, পাবনার ১, কুষ্টিয়ার ১ ও জয়পুরহাটের ১ জন। একই সময় সুস্থ্য হয়েছে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪৬ জন।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত এ হাসপাতালের ৪০৫ বেডের বিপরীতে করোনা ও উপসর্গের রোগী ভর্তি রয়েছেন ৪৬২ জন। বুধবার ভর্তি ছিলেন ৪৬০ জন। অতিরিক্ত বেডের ব্যবস্থা করে অতিরিক্ত রোগিদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এরমধ্যে রাজশাহীর ৩০৩ জন, চাঁপাইয়ের ৫৬, নাটোরের ৩৫, নওগাঁর ৪৩, পাবনার ১৬, কুষ্টিয়ার ১, চুয়াডাঙ্গার ১, জয়পুরহাটের ১, দিনাজপুরের ১ ও মেহেরপুরের ১ জন।
খুলনা বিভাগে করোনায় আরও ২৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১২৭৭

রামেক পরিচালক জানান, বুধবার রাজশাহীর দুই ল্যাবে তিন জেলার ৫৫৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ হয়েছে ২৪৮ জনের। এদিন রাতে প্রকাশিত দু’টি পিসিআর ল্যাবের নমুনার ফলাফলে দেখা যায়, রাজশাহী শনাক্তের হার ৩৯.০৯%, চাঁপাইনবাবগঞ্জে শনাক্তের হার ৩৭.৯৩% ও নওগাঁয় ৬৩.৫৬%।